দুর্গাপুজোয় প্যাচপ্যাচে কাদা, নাকি কাঠফাটা রোদ্দুর? কবে ঠাকুর দেখতে পারবেন, জেনে নিন আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস

| Sep 28 2022, 12:05 PM IST

দুর্গাপুজোয় প্যাচপ্যাচে কাদা, নাকি কাঠফাটা রোদ্দুর? কবে ঠাকুর দেখতে পারবেন, জেনে নিন আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস
দুর্গাপুজোয় প্যাচপ্যাচে কাদা, নাকি কাঠফাটা রোদ্দুর? কবে ঠাকুর দেখতে পারবেন, জেনে নিন আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস
Share this Article
  • FB
  • TW
  • Linkdin
  • Email

সংক্ষিপ্ত

একটানা ২ বছরের অতিমারি কাটিয়ে যাওবা ছন্দে ফিরতে চলেছিল বাঙালির দুর্গাপুজো, তাতেও বাধ সাধতে চলেছে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া নিম্নচাপ। টানা বৃষ্টি কাটিয়ে কবে কবে ঠাকুর দেখতে বেরোতে পারবেন আপনি? 

একটানা ২ বছরের অতিমারি পেরিয়ে ছন্দে ফিরতে চলেছিল বাঙালির দুর্গাপুজো, সেই অনুযায়ী বাঁশ বেঁধে মণ্ডপ সাজিয়ে প্রতিমাও এনে ফেলেছেন একের পর এক পুজো উদ্যোক্তারা। মহালয়ার আগে থেকে শহরে উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে বড় বড় পুজো মণ্ডপের। দেবী পক্ষের শুরু থেকে ঠাকুরও দেখতে বেরিয়ে পড়েছেন মানুষ।

তবে, সেপ্টেম্বর মাসের শুরু থেকেই যা বৃষ্টি হয়েছে বাংলায়, তাতে পুজোর বাজার মাটি হয়েছে অনেকটাই। তারপর দুর্গাপুজো শুরু হওয়ার একসপ্তাহ আগে পর্যন্তও নিরাশার বার্তাই শোনাল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। হাওয়া অফিস সূত্রে জানা গিয়েছে যে, উৎসবের আনন্দ প্যাচপ্যাচে কাদায় ভরিয়ে তুলতে চলেছে বঙ্গোপসাগরে নতুন সৃষ্টি হওয়া ঘূর্ণাবর্ত।

Subscribe to get breaking news alerts

আবহাওয়াবিদ জানিয়েছেন, “দক্ষিণ মায়ানমারের উপকূলবর্তী এলাকায় নিম্নচাপ ঘনীভূত হবে ৩০ সেপ্টেম্বর রাতে। ১ তারিখে সেটি ছোটখাটো সাইক্লোনের আকার নিতে পারে। গতিপথ হবে সুন্দরবন থেকে কলকাতা হয়ে পশ্চিমবঙ্গের পশ্চিমের দিকে।  ফলে ৩, ৪ ও ৫ সেপ্টেম্বর ভারী বৃষ্টি হতে পারে কলকাতা সহ সমগ্র উপকূলবর্তী এলাকায়। ১ ও ২ তারিখ বিচ্ছিন্নভাবে বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে বাংলায়। স্থলভাগের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়ার সময়ে নিম্নচাপটির শক্তি বেড়ে গেলে সেটি অন্য রূপ নিতে পারে।” অর্থাৎ, মৌসম ভবনের পূর্বাভাস অনুযায়ী, নিম্নচাপের কবলে পড়ে সপ্তমী থেকেই প্রবল জলঝড়ে ভাসতে পারে পুজোর বাংলা। 

হাওয়া অফিস এই মুহূর্তে একটাই আশার কথা জানিয়েছে যে, চলতি সপ্তাহের শুক্র এবং শনিবার, অর্থাৎ পঞ্চমী এবং ষষ্ঠীর দিন দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা প্রায় নেই। বৃষ্টি হলেও তার পরিমাণ থাকতে পারে একেবারে হালকা। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, পূর্ব-মধ্য সংলগ্ন উত্তর বঙ্গোপসাগরে ক্রমশ ঘণীভূত হচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত। এটির প্রভাবেই রবিবার থেকে বৃষ্টির সম্ভবনা দক্ষিণবঙ্গে।

২৭ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার, দক্ষিণের কিছু কিছু জেলায় বিক্ষিপ্তভাবে মাঝারি ধরনের বৃষ্টিপাত হলেও, কলকাতায় সেভাবে বৃষ্টিপাত হয়নি। তবে, বুধবার, অর্থাৎ ২৮ তারিখ সকাল থেকেই শহরের আকাশের মুখ ভার। সকাল থেকেই মেঘের গর্জন আর বিক্ষিপ্তভাবে মাঝারি বৃষ্টির সাক্ষী শহরবাসী। আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, বৃষ্টির ফাঁড়া থেকে বাদ পড়ছে না উত্তরবঙ্গও। দক্ষিণবঙ্গের সবক’টি জেলায় তো বটেই, তৃতীয়ার দিন উত্তরবঙ্গের আট জেলাতেও বৃষ্টি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। এই বৃষ্টি চলতে পারে  বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। 

দুর্গাপুজোর সময় বৃষ্টির সম্ভাবনা নিয়ে উদ্বিগ্ন পুজো উদ্যোক্তারা। বৃষ্টি হলেই কলকাতায় সবথেকে বেশি দুর্ভোগের কারণ হয় জমা জল। সেই জলে যাতে দর্শনার্থীদের নাজেহাল না হতে হয়, সে কথা মাথায় রেখে মঙ্গলবার বৈঠকে বসেছে কলকাতা পুরনিগম। পুরনিগমের ১৬ টি বরোর সিভিল এবং নিকাশি বিভাগের প্রধান এক্সিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ারদের নিয়ে বৈঠক করেছেন নিকাশি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র পারিষদ তারক সিং। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ইতিমধ্যেই মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে নির্দেশ দিয়েছেন, বিশেষভাবে জলমগ্নতাপ্রবণ এলাকাগুলির ওপরে কড়া নজর রাখতে। 

আরও পড়ুন-
রাজস্থানে গেহলট বনাম পাইলট অনুগামীদের দ্বন্দ্ব ক্রমবর্ধমান, ৩ গেহলট অনুগামী নেতাকে কংগ্রেসের নোটিস
ভারতে যখন দেবীপক্ষ, ইরানে উড়ছে নারীদের চুলের ধ্বজা, ‘বরদাস্ত করব না’, হুঁশিয়ারি প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির
কেবলমাত্র কল্লোলিনী কলকাতা নয়, দিলওয়ালো কা দিল্লিতেও দুর্গাপুজো ছাড়িয়েছে একশো বছর, রইল সেরা মণ্ডপগুলির হদিশ 

null