বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই শুরু হয়েছে বৃষ্টি রাজ্য়ের বিভিন্ন জায়গায়। আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ এবং মালদহে ঝড়-বৃষ্টির বড়সড় প্রভাব পড়বে । তবে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোয় ভারী বৃষ্টি হবে। শহর কলকাতাতেও বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। 

আরও পড়ুন, কলকাতা মেডিক্য়াল কলেজের বন্ধ ঘর থেকে মিলল কাটা পা, শিহরিত হাসপাতাল কর্মীরা

আজ বৃহস্পতিবার, শহর কলকাতার আকাশ রাতের দিকেও আংশিক মেঘলা থাকবে। আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৯.০ ডিগ্রী সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রী কম। এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা  ৩০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রী কম। আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী,  বৃহস্পতিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকতে পারে   ৩০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি।  শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯৬ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৪৭ শতাংশ।  গতকালেরও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা  ৩১.৩  ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রী কম। এই মুহূর্তে শহরের তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  

আরও পড়ুন, জোর করে রং দিলে ঢুকতে হবে শ্রীঘরে, আগাম বার্তা লালবাজারের

কলকাতা এবং তার সংলগ্ন এলাকাগুলিতে বৃষ্টি হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। হাওয়া অফিস জানাচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত এবং পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে চলতি সপ্তাহের শুক্রবার পর্যন্ত বৃষ্টি চলতে পারে। এমনকী বৃষ্টির সঙ্গেই রাজ্যের কোনও কোনও জায়গায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়াও বইতে পারে। উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং সহ পাঁচ জেলায় বৃষ্টি চলবে। আগামী কয়েকদিন রাতের তাপমাত্রার খুব একটা পরিবর্তন হবে না। তবে দিনের তাপমাত্রা আগামী দুই দিনে প্রায় ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমে যাবে। 

আরও পড়ুন, দোল এলেই কন্ডোম-পিলের চাহিদা তুঙ্গে, কী বলছেন শহরের বিক্রেতারা


আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী,  পশ্চিমী ঝঞ্ঝার শীতল হাওয়া ও বঙ্গোপসাগর থেকে পূবালীর গরম হাওয়ার সংঘাতে বৃষ্টি হবে রাজ্যজুড়ে। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার-এ ভারী বৃষ্টি ও ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশে। বৃহস্পতিবার থেকে শনিবারের মধ্যে ব্যাপক বৃষ্টি তুষারপাত হবে জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখ, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখন্ডে এবং শুক্রবার পর্যন্ত মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস ওড়িশা, পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম, বিহার, ঝাড়খন্ড, ছত্রিশগড়, মধ্যপ্রদেশ ও উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে।