সূর্য ডুবতেই আরও হিমেল অনুভব শহর কলকাতায়। বিকেল ৫ টা ৩১ হতে না হতেই শহরের তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি। রাত বাড়লে যে পাতলা চাদর আর নাক দুই টানতে হবে, তার পূর্বাভাস আগেই মিলেছে। তবে কলকাতার থেকে অনেকটাই এগিয়ে উত্তর-পূর্ব ভারত। শৈত প্রবাহের রীতিমত সতর্কতা রয়েছে সেখানে। তবে শীত যতই বাড়বে নিয়নের আলোয় আর শীতকালের কুয়াশায় নস্টালজিয়ায় ভাসবে শহরবাসী। 

কলকাতায় রাতে হিমেল হাওয়া, আগামী ৩-৪ দিন বৃষ্টি


শনিবার কলকাতায় রাতে হিমেল হাওয়া বইবে। শুধু কলকাতায় নয় জেলায় জেলায় তাপমাত্রাও নেমে শীতের আমেজ।পশ্চিম বর্ধমানের মত জেলায় ১৪ ডিগ্রিতে  পারদ। কলকাতায় সকাল ও রাতে শীত ভাব থাকলেও বেলা বাড়লে শীতের আমেজ উধাও। আগামী চার দিনে পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চন্ডিগড়, দিল্লি, উত্তর প্রদেশ, বিহার ,উড়িষ্যা ও বাংলায় তিন ডিগ্রি পর্যন্ত পারদ নামতে পারে বলে অনুমান মৌসম ভবন এর। উড়িষ্যাতে ঘন কুয়াশা ও হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস।আগামী তিন-চার দিন দক্ষিণ-পূর্ব মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে এবং ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে বৃষ্টি হবে তামিলনাড়ু, পন্ডিচেরি, কেরালা, কর্ণাটক ও অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা। শনিবার ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস তামিলনাড়ুতে। আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে সোম-মঙ্গলবার নাগাদ ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। 

 

 

শৈত্যপ্রবাহ বইতে পারে রাজধানীতে

 আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, শনিবার কলকাতার তাপমাত্রা আরও কমে ১৯.১ ডিগ্রী সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি নিচে পারদ। শনিবার  শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা  ৩২.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি উপরে।   শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক  ৯৫ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৩২ শতাংশ।  শুক্রবার  শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা  ৩২.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি উপরে।  সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ১৯.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  স্বাভাবিকের ২ ডিগ্রি নীচে। শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক  ৯৩ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৩০ শতাংশ।  শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা  ৩১.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক  ৮৪ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৩৪ শতাংশ।মৌসম ভবন এর পূর্বাভাস শৈত্যপ্রবাহ বইতে পারে রাজধানী দিল্লি, হরিয়ানা পাঞ্জাব এবং উত্তর রাজস্থানে।