অবশেষে রাজ্য়ে রেকর্ডের গাড়ি থামাল করোনা। স্বাস্থ্য় দফতরের বুলেটিন বলছে,রবিবার সর্বোচ্চ রেকর্ডের সংখ্যা পেরিয়ে এবার নীচে নামল একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা।
মৃতের সংখ্যাও ২ কমেছে বলছে হিসেব।  সোমবারের হিসেব অনুযায়ী, একদিনে রাজ্য়ে আক্রান্তের সংখ্যা দেড় হাজারের নীচে চলে এল। রবিবার থেকে সোমবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত রাজ্য়ে সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ২৪ জনের৷ রবিবার এই সংখ্যাটা ছিল ২৬ জন৷

সব মিলয়ে রাজ্য়ে এখনও পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে  ৯৫৬ জন৷  রবিবার এই সংখ্যাটা ছিল ৯৩২ জন৷ পরিসংখ্য়ান জানাচ্ছে, বাংলায় এখন অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা ১১,২৭৯ জন৷ বুলেটিনের তথ্য বলছে, রাজ্য়ে একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ১,৪৩৫ জন৷ গতকাল ছিল ১,৫৬০ জন।এই পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৩১,৪৪৮ জন৷ গতকাল ছিল ৩০ হাজার ১৩ জন৷

এদিকে বাংলায় চার জেলায় ছড়িয়েছে সর্বাধিক সংক্রমণ। বেগতিক দেখে তড়িঘড়ি নোডাল অফিসার নিয়োগ করেছে রাজ্য সরকার। সোমবার জারি হয়েছে সেই নির্দেশিকা। নতুন নির্দেশিকা অনুযায়ী কলকাতা, হাওড়া ও দুই ২৪ পরগণার দায়িত্বে থাকবেন এই নোডাল অফিসাররা। নির্দেশিকা বলছে, কলকাতার জন্য নিয়োগ করা হয়েছে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে।  উত্তর ২৪ পরগণার দায়িত্ব পেয়েছেন মনোজ পন্থ। পাশাপাশি দক্ষিণ ২৪ পরগণার জন্য নবীন প্রকাশ ও হাওড়ার জন্য রাজেশ পাণ্ডেকে দায়িত্ব দিয়েছে রাজ্য় সরকার।

এদিকে সোমবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন হুগলির চন্দননগরের ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট দেবদত্তা  রায়। বয়স মাত্র আটত্রিরিশ বছর। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমেছে প্রশাসনিক মহলে। জ্বরে ভুগছিলেন বেশ কয়েকদিন ধরে।