পেঁয়াজের দাম এই মুহূর্তে পাইকারি বাজারে ১০০ টাকা ছুঁয়েছে। শহরবাসীর ইতিমধ্য়েই এ নিয়ে স্বাভাবিক ভাবেই নাভিশ্বাস উঠেছে। রাজস্থান থেকে পেঁয়াজ আনা যায় নাকি সে ব্য়াপারে বিস্তারিতভাবে খতিয়ে দেখছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

আরও পড়ুন, ভোর রাতে ঠান্ডা থাকলেও বেলা গড়ালে কিছুটা গরম, এখনও লাগছে পাখার হাওয়া

খাদ্য় প্রক্রিয়াকরণ এবং উদ্য়ান পালন দফতর-এর মন্ত্রী আবদুর রজ্জাক মোল্লা জানিয়েছেন, রাজ্য়ের অধিকাংশ পেঁয়াজের যোগান আসে নাসিক এবং মহারাষ্ট্র থেকে। কিন্তু বর্ষা এসে সেই দাম ক্রমশ বাড়িয়ে তোলে। কর্ণাটক এবং তেলেঙ্গানা থেকেও  এখন যোগান বন্ধ হওয়ার দরুন বাজারদরের অবস্থা তথৈবচ। সেই জন্য়ই রাজ্য় সরকার এখন বিকল্প হিসাবে অন্য় রাজ্য়ের থেকে পেঁয়াজের পর্যাপ্ত যোগান প্রক্রিয়ার কাজে হাত দিয়েছে। মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে যে আগামী কয়েকদিনের মধ্য়ে পেঁয়াজের দাম কমার সম্ভাবনা নেই।

আরও পড়ুন, ৬ বছর পর ফের কলকাতায় বাড়ছে মেট্রোর ভাড়া, সিদ্ধান্ত কার্যকর আগামী মাস থেকেই

সরকারি টাস্ক ফোর্সের সদস্য় রবীন্দ্রনাথ কোলে জানিয়েছেন,রাজস্থানের থেকে আসা পেঁয়াজের রঙ যেমন লাল তেমনই খেতেও মিষ্টি। এই ধরনের পেঁয়াজ খুব পরিমানেই কলকাতার বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গের ভেন্ডর অ্য়াসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট কমল দে জানিয়েছেন, নাসিকের ক্ষেত্রে পেঁয়াজের দাম কিছুটা পড়লেও, পাইকারী বাজারে পেঁয়াজর দাম  ১০০ টাকা থেকে ১১০টাকার মধ্য়ে ঘোরা ফেরা করছে। তাঁরা আশা করছেন, আগামি কিছুদিনের মধ্য়ে পাইকারী বাজারে পেঁয়াজের দাম কমার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে  সেখানে চাহিদা ও যোগানের মধ্য়ে একটা বড় ব্য়বধান রয়ে গেছে। এটা চলবে ডিসেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ অবধি।