রুশি পাঁজা : কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের নাম পাল্টে ডক্টর শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের নামে কেন করা হল। কেন্দ্রীয় সরকার ও কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের কাছে জানতে চাইল কলকাতা হাইকোর্ট। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি টিবিএন রাধাকৃষ্ণন এবং বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ কেন্দ্রীয় সরকার এবং কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টকে তিন সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা দিয়ে এবিষয়ে জানানোর নির্দেশ দিয়েছে। 

বিজেপির নতুন রাজ্য় কমিটিতে নাম নেই তথাগত রায়ের, স্থায়ী পদে শোভন

নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর নামে কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের নামকরণ আগে থেকেই ছিল। এ বছর ১২ জানুয়ারি পোর্ট ট্রাস্টের ১৫০ তম বর্ষ উপলক্ষে কলকাতায় অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের নামকরণ সুভাষ চন্দ্র বসুর পরিবর্তে ডক্টর শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের নামে করেন। সুভাষ চন্দ্র বসুর নাম পাল্টে কেন শ্যামাপ্রসাদের নামে করা হল, জানতে চেয়ে ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা নরেন চট্টোপাধ্যায় কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ কেন্দ্রীয় সরকার ও পোর্ট ট্রাস্টের কাছে হলফনামার মাধ্যমে নাম পরিবর্তনের কারণ জানতে চেয়েছে তিন সপ্তাহের মধ্যে।

'ওঠ-বোস করবেন মুখ্যমন্ত্রী, দুর্গাপুজো নিয়ে বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ.

তবে শুধু ফব নয়। অতীতে এই নামকরণ নিয়ে প্রতিবাদ করেছিল রাজ্য়ের শাসক দল ও বামেরা। কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের নাম পরিবর্তনের মাধ্য়মে রাজ্য়ে একাধিক জায়গায় কেন্দ্রীয় সরকার গেরুয়াকরণ করতে চাইছিল বলে অভিযোগ করেছে তৃণমূল।