মহারাষ্ট্রের পুনের রাজপথে শান্তবাই পাওয়ার নামে ৮৫ বছর বয়সী মহিলা রাস্তাঘাটে জীবিকা অর্জনের জন্য 'লাঠি খেলা' দেখান। এই বয়সেও পেটের তাগিদে করোনা মহামারির ভয়-কে উপেক্ষা করে রাস্তায় রাস্তায় খেলা দেখিয়ে বেড়ান তিনি। জীবিকা নির্বাহের জন্য, বৃদ্ধ মহিলা লকডাউনে শহরের রাস্তায় তার লাঠি লড়াইয়ের দক্ষতা দেখান। শুরু থেকেই তিনি এই খেলা দেখিয়েই আয় করে বাচ্চাদেরও বড় করেন। 

 

 

 

 

 

 

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল শান্তবাই পাওয়ার এর লাঠি খেলা। ৮৫ বছর বয়সী শান্তাবাাই, বর্তমানে যে সমস্ত মহিলারা ঘরে বসে আছেন তাদের জন্য একটি বড় অনুপ্রেরণা। এই বয়সেও এবং এই সংকটে এই জীবিকা নির্বাহ করা সত্যিই নজরবিহীন ঘটনা। এই যুগে বহু পুরুষও হার মানবেন এই অশতীপর মহিলার মনোবলের কাছে। ভিডিওটি কেবল সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে তা নয়। অনেকেই রেশন এবং আর্থিক সহায়তা দিতে এগিয়ে এসেছেন। বলিউডের অভিনেতা ঋতেশ দেশমুখ তাঁর  শান্তবাই পাওয়ার-কে 'যোদ্ধা নানী' হিসাবে বর্ণনা করেছেন এবং তাঁর সাথে যোগাযোগও করেছেন। শুধু ঋতেশই নন, শান্তাবাাই-এর এই ভিডিও শেয়ার করেছেন বহু সেলিব্রেটি, যার ফলে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং-এ আছেন শান্তবাই পাওয়ার।

 

 

 

 

 

 

এএনআই-এর কাছে শান্তবাই বলেছেন যে, তিনি ৮ বছর বয়স থেকেই লাঠির দক্ষতা শিখতে শুরু করেছিলেন এবং এটি প্রদর্শনের জন্য বিভিন্ন জায়গায় ভ্রমণ করেছিলেন, তবে লকডাউনের কারণে সবকিছু বন্ধ হয়ে যায়। তাঁর বাবাই তাঁকে কঠোর পরিশ্রম করতে শিখিয়েছিলেন। এই সময়ে বেশিরভাগ মানুষ করোনার কারণে ঘরে বসে রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে পরিবারে সদস্যদের মুখে অন্নের যোগান দিতে (যার মধ্যে অনেকগুলি শিশু) রাস্তায় নেমে এই খেলা দেখানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যাতে লোকেরা লাঠি খেলা দেখে, কিছু অর্থ দান করতে পারে। আর সেই অর্থ দিয়েই পরিবারের সমস্ত সদস্যকে তিনি খাওয়াতে পারেন।