পৃথিবীতে প্রানী জগতের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার ক্ষেত্রে একটি অপরিহার্য উপাদান হল জল। প্রানী জগতের জীবন ধারণের জন্য জল অপরিহার্য। জল একটি রাসায়নিক পদার্থ, যার রাসায়নিক সংকেত হল এইচ২ও। জলের একেকটি অণু একটি অক্সিজেন পরমাণু এবং দু'টি হাইড্রোজেন পরমাণুর সমযোজী বন্ধনে গঠিত। সাধারণত পৃথিবীতে জল তরল অবস্থায় থাকলেও এটি কঠিন বরফ এবং বায়বীয় অবস্থাতেও বাষ্প পাওয়া যায়। পৃথিবীতে তরল স্ফটিক রূপেও জলের অস্তিত্ব দেখা যায়। রাসায়নিক যৌগের নামকরণ প্রক্রিয়া অনুসারে জলের বিজ্ঞানসম্মত নাম হল ডাইহাইড্রোজেন মোনক্সাইড।

আরও পড়ুন- পর্যটকদের জন্য সুখবর, চিল্কার হ্রদে বাড়ল ডলফিনের সংখ্যা

জল শরীরে জলের মাত্রা বা ভারসাম্যও বজায় রাখতে সাহায্য করে। কিন্তু প্রতিদিন ঠিক কতটা জল পান করবেন। রোজ কতটা জলের প্রয়োজন মানব শরীরের। এই বিষয়ে যদিও অনেকের নানান মতামত রয়েছে। অনেকেই সারাদিনে প্রচুর জল পান করেন আবার কেউ সারাদিনে এক বোতল জলও শেষ করতে পারেন না। এর মধ্যে কোনও বিষয়ই ঠিক নয়। একজন সুস্থ ও স্বাভাবিক মানুষের শরীরে প্রতিদিন আড়াই থেকে তিন লিটার তরলের প্রয়োজন।

আরও পড়ুন- দাঁতের সমস্যায় ভুগছেন, নিজের টুথপেস্ট বানিয়ে নিন বাড়িতেই
 
বিশেষজ্ঞরা এই বিষয়ে জানিয়েছেন, প্রতিদিন আপনি কতটা পরিমান জল পান করবেন তার একটা বিধি রয়েছে। আর এই ফর্মুলা জানলেই আপনি জেনে সেই জল পান করতে পারবেন। কারণ, জল কম পান করা যেমন স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। আবার জল বেশি পরিমানে পান করাও একইভাবে ক্ষতিকর। তাই এই ফর্মুলা জেনে তবেই জল পান করা উচিত। এর জন্য প্রথমেই আপনার নিজের সঠিক ওজন জানা দরকার। এবারে শরীরে ওজন যত সেই সংখ্যাকে ভাগ করতে হবে ৩০ দিয়ে। ভাগ করে যেই সংখ্যা পাওয়া যাবে সেই ঠিক তত লিটার জল আপনার শরীরের জন্য উপযুক্ত। আপনার ওজন যদি ৯০ কেজি হয় তাহলে ৯০-কে ৩০ দিয়ে ভাগ করুন। ফলাফল হবে ৩ (৯০/৩০= ৩)। সুতরাং, আপনাকে রোজ ৩ লিটার করে জল খেতে হবে।