দুপুরে খাওয়ার পর অনেকেরই মনে হয় বিছানায় একটু শুলে ভাল হয়। কর্মজীবীরা অনেকসময়ে অফিসের মধ্যেই পাঁচ-দশ মিনিট নিজের চেয়ারেই মাথা নীচু করে ঘুমিয়ে নেন। সারাদিনে কাজের পর শরীরে যেন ক্লান্তি আসে। আর এই ক্লান্তি দূর করার জন্য একটু ঘুমের প্রয়োজন হয়। কিন্তু এই ঘুম নিয়ে নানা বির্তক রয়েছ। কেউ বলে দুপুরে ঘুমানো শরীরের জন্য খারাপ, কেউ বলে মেদ জমে। আবার কেউ কেউ  বলে দুপুরের এই ঘুম শরীরের জন্য ভাল। 

আরও পড়ুন-তবে কি ব্যবসা গোটানোর পথে বোস, বন্ধ হতে চলেছে ১০০-র বেশি আউটলেট...

দুপুরে ঘুমের ফলে কী হয়
দুপুরের ঘুমের ফলে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে থাকে। রাতের ঘুমের থেকে দুপুরের ঘুম অনেক শান্তিতে হয়। হাতে একটু সময় থাকলে একটু ঘুমিয়ে নিতে পারেন।

কারণ দুপুরের ঘুম অনেক শান্তিতে হয়। এই ঘুম থেকে ওঠার কোনও তাড়া থাকে না। অ্যালার্ম দিয়ে ওঠার কোন তাড়া থাকে না।

 

দুপুরের ঘুমোলে ব্লাড প্রেসারের উপর ভাল প্রভাব ফেলে।

দুপুরে ঘুমোলে মনে রাখার ক্ষমতা বাড়ে এর পাশাপাশি মস্তিষ্ক অনেক বেশি ক্ষুরধার হয়। সৃজনশীলতা বাড়াতেও সাহায্য করে এই ভাতঘুম।

আরও পড়ুন-চালু হল এটিএম কার্ডের নতুন নিয়ম, জেনে নিয়ে তবেই করুন ব্যবহার...

তাই প্রতিদিন দুপুরে আধঘন্টা করে ঘুমোন। তা হলেই  আপনার সৃজনশীলতা বাড়তে বাধ্য।

দুপুরে ঘুমের ফলে মস্তিষ্কের বিশ্রাম হয়। যার ফলে চিন্তা শক্তি বৃদ্ধি পায়। মাথা যদি কোনও কারণে গরম খাকে তাহলে দুপুর বেলা ঘুমিয়ে পড়ুন। এতে স্নায়ুর উপরক চাপ কমে। মন ভাল হয়।

অনেক সময়েই রাতের ঘুম পরিপূর্ণ হয় না। তার জন্য দুপুরের ঘুম বিশেষ দরকার। এতে ক্লান্তি কেটে যায়। তাই প্রয়োজনমতো যখন পারবেন একচু ঘুমিয়ে নেবেন।