পুজো মানেই নতুন জামা, ঠাকুর দেখা, জমিয়ে আড্ডা আর সেই সঙ্গে খাওয়া-দাওয়া। মন মতো খাওয়া না হলে আড্ডাটা কিছুতেই জমে উঠবে না। আর ভোষণরসিক বাঙালির পুজোর দিনের ভুরিভোজ মানেই সেই সব পদ হতে হবে আর পাঁচটা সাধারণ দিনের থেকে আলাদা। আর এই কারনেই আপনাদের জন্য থাকছে পুজোর দিনগুলির জন্য বিভিন্ন স্বাদের রেসিপি। আজ রইল কোলাপুরি মশালা প্রন-এর খুব সহজ রেসিপি। পুজোর দিনে এই সুস্বাদু চিংড়ি-র পদ বানিয়ে ফেলুন আপনজনদের জন্য।

কোলাপুরি মশালা প্রন বানাতে লাগবে-
বড় চিংড়ি: ৫০০ গ্রাম
পেঁয়াজ: ১টা বড় (মিহি কুঁচনো)
টোম্যাটো: ৩টে বড় (কুঁচনো)
রসুন: ৮ কোয়া
আদা: দেড় ইঞ্চি (বাটা)
ধনেপাতা কুঁচি: ১ কাপ
গুঁড়ো হলুদ: ১ চা চামচ
লঙ্কা গুঁড়ো: ২-৩ চা চামচ

আরও পড়ুন- ছুটির দিনের লাঞ্চ জমে উঠুক মটন পোস্তর সঙ্গে
কাঁচা লঙ্কা কুচি: ২টো
জিরে গুঁড়ো: ১ চা চামচ
ধনে গুঁড়ো: ১ চা চামচ
গরম মশলা: দেড় টেবল চামচ
কারিপাতা: ৫-৬ টা
লেবুর রস: ১ টেবল চামচ
সরষের তেল: ২ টেবল চামচ
লবন: স্বাদ মতো

যে ভাবে বানাবেন- 

আরও পড়ুন- এই খাবারগুলি কখনও গরম করে খাবেন না, হতে পারে ক্যানসারও

চিংড়ি ভালো করে পরিষ্কার করে ধুয়ে জল ঝড়িয়ে নিন
এরপর এতে হলুদ ও লবন মাখিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন
একটি পাত্রে তেল গরম করে চিংড়িগুলি ২-৩ মিনিট ভেজে তুলে রাখুন
একই তেলে পেঁয়াজ কুচি ও সামান্য লবন দিয়ে হালকা সোনালি করে ভেজে নিন
এরপর এতে একে একে আদা-রসুন বাটা, কারিপাতা, টোম্যাটো কুঁচি দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন
প্রয়োজন উষ্ণ গরম জল ব্যবহার করতে পারেন
টোম্যাটো নরম হয়ে গলে গেলে গুঁড়ো হলুদ, লঙ্কা গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো দিয়ে মশলা কষাতে থাকুন
মশলা থেকে তেল বেড়িয়ে এলে ভাজা চিংড়ি ও  গরম মশলা দিয়ে রান্না করুন
রান্না হয়ে এলে উপর থেকে ধনেপাতা কুচি ও লেবুর রস দিয়ে আঁচ বন্ধ করে ঢেকে দিন
এর কিছুক্ষণ পর গরম গরম ভাত বা পোলাও-এর সঙ্গে পরিবেশন করুন কোলাপুরি মশালা প্রন