দিনে দিনে পরিবর্তন হচ্ছে তাপমাত্রার। কমছে তাপমাত্রা আর শুষ্ক হয়ে আসছে আবহাওয়া। তাই এই মরশুমেই বিশেষ যত্নের প্রয়োজন ত্বক ও চুলের। ম্যালেসেজিয়া নামক এক ধরনের ছত্রাকের কারণে খুসকি বৃদ্ধির প্রবণতা দেখা যায়। মূলত এই ছত্রাকটি সকলের ত্বকেই কম বেশি থাকে। শুধুমাত্র এটির পরিমাণ ত্বকে যখন বৃদ্ধি পায় তখন তা ত্বককে শুষ্ক করে তোলে। ফলে অতিরিক্ত ত্বকীয় কোষ উৎপাদিত হতে থাকে এবং বেশি সংখ্যাক ডেড সেলের পরিমান বৃদ্ধি পায়। চুলে তেলের সঙ্গে মিশে খুসকির সৃষ্টি করে। মাথার ত্বকের শুষ্কতার কারণে খুসকি হয়ে থাকে। শীতকালে যখন আবহাওয়াতে আর্দ্রতা কম থাকে তখন ত্বকের শুষ্কতা বৃদ্ধি পায়। যাদের ত্বক এলার্জেটিক তাদের খুসকির প্রবনতা বেশি।

আরও পড়ুন- ব্লাডপ্রেসার থেকে কোষ্ঠকাঠিন্য, একগুচ্ছ সমস্যাতে ম্যাজিকের মত কাজ করবে মটরশুঁটি

প্রতিদিনের ডায়েটে ভিটামিন বি ও জিঙ্ক উপাদান কম থাকলেও খুসকির সমস্যা দেখা দেয়। ত্বকের নানা সমস্যা থাকলে পাশাপাশি মাথার ত্বক অপরিষ্কার থাকলে খুসকির সমস্যা দেখা দেয়। বিশেষজ্ঞদের মত অতিরিক্ত দূষণের ফলেও খুসকির সমস্যা দেখা দেয়। চুলের স্বাস্থ্যহানির জন্য অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দায়ী খুসকি। তাই এই সমস্যা দেখা দিলে যত দ্রুত সম্ভব এর প্রতিকারের ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। তবে সব সময় বাজারে প্রাপ্ত কেমিক্যাল বেসড শ্যাম্পু ব্যবহার না করে ঘরোয়া উপায়েই খুসকির হাত থেকে রেহাই পাওয়া সম্ভব। খুসকির সমস্যার সমাধানে দ্রুত এবং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে মেথি। এর জন্য সারা রাত মেথি ভিজিয়ে রেখে। পরদিন সেই মেথি বেটে, চুলের গোড়ায় দিয়ে রাখুন। এক ঘন্টা পর চুল খুব ভালো করে ধুয়ে নিন। এইভাবে সপ্তাহে দুবার এই মেথির প্যাক ব্যবহার করলে খুসকি সমস্যার হাত থেকে দ্রুত রক্ষা পাবেন। 

আরও পড়ুন- অফিসে বসে বসে কাজ করে মোটা হয়ে যাচ্ছেন, লাঞ্চে রাখুন এগুলি

পেঁয়াজ বেটে ছোট্ট এক বাটি পেঁয়াজের রস বানিয়ে নিন। পেঁয়াজের এই রস ভালো করে মাথায় মেখে নিন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে হালকা গরম জলে চুল ধুয়ে ফেলুন। এরপর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এই পদ্ধতি সপ্তাহে তিন বার ব্যবহার করলে খুসকি দূর হবে পাশাপাশি পাকা চুলের সমস্যা থেকেও মুক্তি পাবেন। খুসকির প্রকোপ কমাতে নারকেল তেল খুব কার্যকর। চুলের গোড়ায় নারকেল তেল একটু গরম করে স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করুন। এতে করে খুসকির সমস্যায় দ্রুত উপকার পাবেন। পাশাপাশি খুসকির হাত থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে পাতিলেবুর রস। দু চা চামচ লেবুর রস এক কাপ জলের সঙ্গে মিশিয়ে স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করুন।