ইতিমধ্যেই করোনা আতঙ্কে জেরবার বিশ্ববাসী । মাস্ক যেন সকলের মুখে। রাস্তা তো দূর ঘরের ব্যালকনিতে দাঁড়ালেও যেন মাস্কেই ভরসা। তবে শুধু এই মাস্ক নয়। মাস্কের পাশাপাশি হ্যান্ড স্যানিটাইজারেরও সমান জনপ্রিয়তা। করোনা হানা থেকে নিজেকে প্রতিরোধ করতে স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়া মাস্ট।  আর এই জনপ্রিয়তার কারণেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উধাও হয়ে যাচ্ছে স্যানিটাইজার। অতিরিক্ত বিক্রির ফলে মিলছে না স্যানিটাইজার। কয়েকদিনের মধ্যে  এই স্যানিটাইজার  বিক্রি যেন দ্বিগুণ বেড়েছে।  বিক্রি  যেমন বেড়েছ তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে দামও। প্রতিটি দোকানেই আগে গড়ে ৫-১০ টা স্যানিটাইজার বিক্রি হতো। যার সংখ্যা রীতিমতো ২০০ ছাড়িয়ে গেছে। যা সাপ্লাই দিতে গিয়েই হিমশিম অবস্থা দোকানিদের। ছোট, বড়, মাঝারি সব সাইজের স্যানিটাইজারেরই বিক্রি বেড়েছে। তবে শুধু বিক্রি নয়, দামও বেড়েছে। 

আরও পড়ুন-করোনা ছড়াতে পারে সাধের স্মার্টফোন থেকেও, জেনে নিন পরিষ্কার রাখার সহজ উপায়...

বাজার চলতি পকেট স্যানিটাইজারও দেদার বিকোচ্ছে মার্কেটে। বাড়ির বড়রাও পকেট স্যানিটাইজার কিনে দিচ্ছে ছোটদের। তার নিজেদের স্কুল ব্যাগেও রাখছে এই স্যানিটাইজার। কিন্তু এই  ভয়াবহ পরিস্থিতেতে নিজেকে এই মারণ রোগের হাত থেকে বাঁচাতে বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন এই হ্যান্ড স্যানিটাইজার। কিন্তু  ভাবছেন তো কীভাবে বানাবেন, খুব সহজেই মাত্র কয়েকটা জিনিস দিয়েই বানিয়ে নিতে পারেন এই স্যানিটাইজার। রইল সহজ পদ্ধতি।

আরও পড়ুন-অগ্নিমূল্য বাজারে হু হু করে কমছে সোনার দাম, জেনে নিন আজকের দর...

উপকরণঃ

যে কোনও হার্ডওয়ারের দোকান থেকে আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহলের মিশ্রণ কিনতে পাওয়া যায়। সেটা কেনার সময়ে দেখে নেবেন যেন ৯১ শতাংশ   আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহল বা রাবিং অ্যালকোহল রয়েছে এমন মিশ্রণ কেনার। তার সঙ্গে কিছুটা পরিমাণ গ্লিসারিন বা অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন।  আর গন্ধের জন্য আপনার পছন্দ মতো এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিন।

আরও পড়ুন-সুস্থতার সঙ্গে ঘুমের কী সম্পর্ক, জেনে নিন বয়স অনুযায়ী ঘুমের পদ্ধতি...

পদ্ধতিঃ

২/৩ কাপ আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহলের সঙ্গে ১/৩ কাপ গ্লিসারিন বা অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন। তারপর ভাল করে মিশ্রণটি মিশিয়ে নিয়ে তার মধ্যে আপনার পছন্দের যে কোনও এসেনসিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিন। এবার এই তিন উপাদান ভাল করে মিশিয়ে নিলেই তৈরি আপনার হ্যান্ডওয়াশ। তারপর একটি বোতলে ভরে রেখে দিন। যখনই হাত ধোবেন তখনই এটি ব্যবহার করুন। ১ ঘন্টা অন্তর অন্তর হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত ধুয়ে নিন।