হাতে আর মাত্র কয়েকটি দিন। তারপরেই শেষ হতে চলেছে গোটা একটি বছর। আর নতুন বছর মানেই সবকিছুই নতুন। নতুন বছর পড়া মাত্রই পুরোনোকে বিদায় জানিয়ে নতুনকে স্বাগত জানানো। সারা বছর কর্মক্ষেত্রে কিছু না কিছু সমস্যায় আমরা কমবেশি প্রত্যেকেই জেরবার থাকি। কিন্তু নতুন বছর শুরুর সঙ্গে সঙ্গে যদি পুরোনো সমস্যা নিয়ে বছরটা শুরু হয় সেটা কিন্তু ভাল লাগে না কারোরই। তাই নতুন বছর মানেই চাই নিউ ইয়ার রেজোলিউশন। কিন্তু বছরের শুরুতে প্রতিজ্ঞা করা সমস্ত কথা বছর পেরোতে না পেরোতেই আমরা ভুলে যাই।  কিন্তু এবার আর তা করলে চলবে না। বছরের শুরুতে কর্মক্ষেত্রে নিজের অবস্থান ভাল করতে মেনে চলুন এই ৫ রেজোলিউশন।

আরও পড়ুন-ক্যান্সার থেকে ডায়াবেটিস, খুবই কার্যকরী ড্রাগন ফল...

কোয়ান্টিটি ভুলে মন দিন কোয়ালিটিতে

বছর শেষ হওয়ার আগে নিজেকে প্রশ্ন করুন। আপনি স্মার্ট ওয়ার্কার হতে চান না হার্ড ওয়ার্কার। অফিসে এমন অনেক কাজ থাকে যেগুলি খুব কঠোর পরিশ্রম করে করলেও খুব একটা লাভ হয় না। আবার এমন কোনও প্রজেক্ট যেখানে কিনা সামান্য খাটলেই সকলের নজরে পড়া যায়। এই ধরনের কাজগুলিতে বেসই মন দিয়ে করুন। আপনার পরিশ্রম ও সময় কোন কাজে ব্যায় করলে সাফল্য আসবে সবার আগে সেটা জেনে নিন। সারাদিন কতটা কাজ করছেন তার থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ  সারাদিনে কী কাজ করছেন।

কাজকে ভালবাসতে শিখুন

নিজের মন থেকে কাজকে সবার আগে ভালবাসুন। সবসময়ে বসের কথামতো সব কিছু অক্ষরে অক্ষরে পালন করলেই সাফল্য আসে না। নিজের উপর বিশ্বাস রাখুন। নিজের কাজের জায়গায় যতটা পারবেন সিরিয়াস থাকুন। বসকে খুশি করতে কাজ নয়, বরং ভালবেসে নিজেকে খুশি করে কাজটা করুন।

আরও পড়ুন-স্মৃতিশক্তি দুর্বল হয়ে পড়ছে , জেনে নিন কয়েকটি অব্যর্থ টিপস...

কমফোর্ট জোন ভুলে যান

যে কোন একটা নির্দিষ্ট কাজের মধ্যে নিজেকে আটকে ফেলবেন না। এতে আপনার উন্নতিও আটকে যেতে পারে। নিজের কমফোর্ট জোন থেকে বেরিয়ে নতুন কিছু করার চেষ্টা করুন। কর্মক্ষেত্রে  নিজেকে গুটিয়ে রেখে কখনওই কাজ করা ঠিক নয়। নতুন কাজ করলেই সাফল্য আসতে বাধ্য এবং বসেরও সুনজরে পড়বেন।

ব্যক্তিগত ব্র্যান্ডিং

অনেকেই আছেন যারা কিনা সারাবছর ফাঁকি দেওয়ার পরেও  ভালো কাজের তকমা নিয়ে দিনের শেষে বাড়ি ফেরেন। কিন্তু আপনি কি তাদের মধ্যে পড়েন? পড়েন না তো। সারাবছর মন দিয়ে কাজ করেও নিজের ব্র্যান্ড তৈরি করতে পারেন নি। তাই নতুন বছরের শুরুতেই নিজের ব্র্যান্ড তৈরি করুন। সারাদিন বসে শুধু কাজ করলেই হল না। বসেরও নজরে পড়া চাই। তাই সবার আগে নতুন বছরে অফিসে যাওয়ার আগে নিজের ব্র্যান্ড ভ্যালু নিজেই তৈরি করুন।

নিজের বেস্টটা দিন

সবসময় আপনার মনের মতোন সবকিছু হবে তা কিন্তু কখনওই নয়। মনের মতোন সবকিছুকে করে নিতে হয়। কিন্তু যে কাজটি করবেন তাতে সবসময় চেষ্টা করুন নিজের বেস্টটা দিতে। যে কোনও কাজ করার সময়েই মাথা ঠান্ডা রাখুন। বিরক্তি, রাগ কর্মক্ষেত্রে যতটা পারবেন দূরে সরিয়ে রাখুন। দিনের শেষে আপনার কাজই কিন্তু আপনার কথা বলবে। তাই ভুলেও কিন্তু ডেডলাইন মিস করবেন না।