মা দুর্গা চলে এল বলে। তার আগেই মেকআপ থেকে প্যান্ডেল হপিং, খাওয়া দাওয়া সব কিছুরই প্ল্যানিং প্রায় শেষ। তবে পুজোর আগে যদি পাওয়া যায় রকমারি আই লাইনার পরার বেশ কিছু ধরণ। তবে তো পুজোয় চোখের মেক আপ একেবারে জমে যাবে। আর তাছাড়া আই লাইনার পরতে কে না ভালোবাসে। চোখে কালো বা নীল রঙের লাইনার বদলে দিতে পারে আপনার স্টাইল স্টেটমেন্ট। চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক আই লাইনার পরার চারটি ধরণ। 

ন্যাচরাল স্টাইল আইলাইনার লুক- 

প্রতিদিন পরার জন্য এই ধরণটি একেবারে আদর্শ। আর পরাও খুব সহজ। উপরের ল্যাশ লাইন বরাবর ছোট ছোট করে স্ট্রোক এঁকে নিন। তারপরে আর একবার তার উপরে একটি স্ট্রোক দিয়ে আগের স্ট্রোকগুলি জুড়ে দিন। তবে এক্ষেত্রে বলা যায় যে এক টানে আঁকার চেষ্টা করলে কিন্তু লাইন অসমান হতে পারে। উপরের পাতায় লাইনার পরা হয়ে গেলে চোখের নিচের পাতার ওয়াটার লাইনে কাজল পরে নিলেই ন্যাচরাল স্টাইল আইলাইনার লুক রেডি। 

হেভি বটম স্টাইল লুক- 

চোখে গাঢ় কালো কাজল পরাটাই এই আই লাইনার লুকের মূল উদ্দেশ্য। এর ফলে চোখ খুব উজ্জ্বল এবং বড় দেখায়। প্রথমেই চোখের নিচের পাতার ওয়াটার লাইন ধরে ক্রিম বেসড কাজল পরে নিন। তারপর কাজলটাকে ব্রাশ দিয়ে একটু স্মাজ করে দিন। তবে এর উপর ম্যাচিং আই শ্যাডো ডাস্ট করে নিলেই অনেক্ষন স্থায়ী হবে কাজলটা। এরপর চোখের নিচের পাতায় কনসিলার লাগিয়ে নিলেই পরিচ্ছন্ন দেখাবে আপনার লুক। 

ক্যাট আই স্টাইল লুক-

পুজোর সপ্তমী বা অষ্টমীর সন্ধ্যায় শাড়ি বা যে কোনও পোশাকের সঙ্গে মানিয়ে যাবে এই লুক। প্রথমেই চোখের নিচে ল্যাশ লাইন থেকে শুরু করে বাইরের দিকের কোনায় একটা ছোট কোনাকুনি লাইন এঁকে নিন। তারপর ওই ছোট লাইনটার মাথা থেকে শুরু করে চোখের মাঝামাঝি পর্যন্ত আর একটি রেখা আঁকুন। মাঝের তিনকোনা ফাঁকা জায়গাটা লাইনার দিয়ে ভরাট করে নিলেই আপনার ক্যাট আই লুক তৈরি। 

ডাবল উইংড লুক-

এই স্টাইলের শুরুতেই চোখের উপরের পাতায় প্রথমে ক্যাট আই-এর মত করে লাইনার পরে নিন। তারপর ক্যাট আই-এর উইং বরাবর ঠিক নিচেই আর একটি সরু রেখা টানুন। তবে নিচের পাতার ল্যাশ লাইন থেকে বাইরের দিকে টানতে হবে রেখাটা। 

তাহলে এবার এই রকমারি আই লাইনার পরে গুছিয়ে নিন আপনার পুজোর লুক।