শীত আসার সঙ্গে সঙ্গেই শীতের পোশাক নিয়ে স্টাইল শুরু হয়ে যায় প্রত্যেকেরই। নিত্যদিনের ব্যবহারের জন্য হরেক রকমের সোয়েটার তো রয়েছেই, হাল ফ্যাশনে ট্রেন্ডি লুক আনতে শালও অনেকটাই এগিয়ে। মান্ধাতার আমল থেকেই এই শাল ব্যবহার হয়ে আসছে। শাল অনেক ধরণের হয়, আধুনিক যুগেও এর কোনও বিকল্প নেই। পুরোনো থেকে নতুন স্টাইলে কীভাবে নিজেকে শাল দিয়ে মোড়া যায় রইল তার হদিশ।

আরও পড়ুন-মাইগ্রেনের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ভরসা রাখুন আড়াই প্যাচের জিলিপিতে...

পঞ্চু স্টাইল

শীতের ফ্যাশনে পঞ্চু খুবই স্টাইলিশ একটা ড্রেস। পঞ্চু কুর্তি থেকে শুরু করে সোয়েটার সবই এখন ফ্যাশনে হিট। শাল দিয়েও এমন কুর্তি অনায়াসে বানানো যায়। যে কোনও ডার্ক রঙের শাল নিয়ে সেটাকে আড়াআড়িভাবে গায়ে ফেলুন। তারপর সামনের দুটো ধার পিন বা স্টাইলিশ বো দিয়ে আটকে নিন। একদম নীচে পর্যন্ত আটকাবেন না। তাহলে হাত বার করতে অসুবিধা হবে। এবার জিন্স, জেগিংস, বা লেগিংসের সঙ্গে ম্যাচ করে পরে নিন।

ফ্রেঞ্চ নট স্টাইল

স্কার্ফকে বিভিন্ন স্টাইলে নেওয়া যেতে পারে। জিন্সের সঙ্গে এই স্কার্ফ দেখতে দারুণ সুন্দর লাগে। ফ্রেঞ্চনট স্টাইলেও স্কার্ফকে নিতে পারেন। প্রথমে শালটাকে মাঝখান দিয়ে ভাঁজ করে গলায় নিতে হবে। তারপর মাঝখানের ফাঁকা অংশে সাইডের পার্টটা ঢুকিয়ে টেনে দিতে হবে। তাহলেই নটের মতো দেখতে লাগবে।

আরও পড়ুন-সঙ্গীকে নিজের বশে রাখতে চান, জেনে নিন গোপন টিপস..

নটেড নেকলেস

ভারী শাল দিয়ে এই ডিজাইন ভাল লাগবে না। হালকা পশমিনা দিয়ে এগুলো ট্রাই করতে পারেন। নটেড নেকলেস পরার জন্য় প্রথমে পশমিনাটাকে গলার মধ্যে সমান করে নিতে হবে। তারপর একদিকে পশমিনাকে গোল করে ফোল্ড করে তার মধ্যে আরেকটা দিককে ঢুকিয়ে দিতে হবে। একটু নীচের দিকে ঝুলিয়ে এটিকে পরতে হবে। জিন্স, ট্রাউজারের সঙ্গে দারুণ মানানসই এই নটেড নেকলেস।

কোজি নেক ব়্যাপ

পশমিনা বা শালটাকে হালকা করে মুড়িয়ে নিয়ে বেশ কয়েকবার পেঁচিয়ে নিয়ে গোল করে নিন। তারপর মাথা দিয়ে সেটি গলিয়ে নিন। হাইনেক সোয়েটারের সঙ্গে কোজি নেক ব়্যাপ দারুণ মানানসই।

ডবল লুপ

প্রথমে শালটারে দুটো লেয়ারে মুড়ে নিতে হবে তারপর সেটিকে গলায় পেঁচিয়ে নিতে হবে। বাড়তি যেটা বেরিয়ে থাকবে সেটা দিয়ে একটা হটকা করে নিলেই রেডি ডবল লুপ।