সারা বিশ্ব জুড়ে দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস।  মারণ রোগ থেকে বাঁচতে সারা দেশে চলছে লকডাউন-এৎ আনলক পর্ব। আর এই লকডাউনে বহু লোকই কাজ হারিয়েছেন। বিশেষ করে ছোট ব্যবসায়ীদের উপর এর মারাত্মক প্রভাব পড়েছে। এহেন সঙ্কটজনক পরিস্থিতিতে খাদ্যসঙ্কট দেখা দিয়েছে মারাত্মক ভাবে। উপার্জন থেকে খরচ বেশি হওয়াতেই সকলের হিমশিম অবস্থা। এই পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে সকল মানুষের কথা চিন্তা করে অভিনব পদ্ধতি চালু করেছে দিল্লির একটি দোকান। যেখানে কিনা মাত্র ১ টাকার বিনিময়ে মিলছে দুপুরের পেট ভরা খাবার। শুনে অবিশ্বাস্য মনে হলেও এটাই সত্যি। কিন্তু কোথায় রয়েছে এই দোকান।

দিল্লির শিব মন্দির এলাকায় রয়েছে এই দোকান। যার নাম শ্যাম রসই। দোকানের মূল উদ্দেশ্য হল মাত্র ১ টাকার বিনিময়ে দুপুরের খাবার তুলে দেওয়া। লকডাউনের সময় থেকেই শুরু হয়েছে এই অভিনব উদ্যোগ। গত ২ মাস ধকেই অভুক্ত সাধারণ মানুষের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন দোকানের মালিক প্রবীন কুমার। তিনি জানিয়েছেন, প্রতিদিন প্রায় ২ হাজার মানুষের খাবার এখান থেকে যায়। এবং তার মধ্যে ১ হাজার মানুষ নিয়মিত দোকানে এসে খান। বাকীদের পার্সেল করা হয়। 

 

 

সকাল ১১ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত ১ টাকায় মেলে দুপুরের খাবার। এবার অনেকের মনেই প্রশ্ন উঠতে পারে মাত্র ১ টাকার বিনিময়ে কী কী থাকতে পারে খাবারের মেনুতে? ভাত, রুচি, পনির, সয়াবিন, হালুয়া রয়েছ এই ১ টাকার থালিতে। মোট ৬ জন কর্মী রয়েছে এখানে। আগে ১০ টাকায় খাবার দেওয়া হতো কিন্তু বেশি মানুষকে খাবার পৌঁছে দিতে পরে ১ টাকায় খাবার দেওয়া চালু করেন দোকানের মালিক প্রবীন কুমার। অনেকেই তাদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছেন বলে জানিয়েছেন প্রবীন। সকলের সাহায্যেই এই কাজ চালিয়ে যেতে পারছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।