বিশ্বে করোনার প্রকোপ পড়েছিল ২০১৯-এর শেষ থেকেই। একে একে বিভিন্ন দেশ সংক্রমণের হার কমাতে বেছে নিয়েছিলেন লকডাউনের পথ। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা। যার বড় সড় কোপ পড়েছে বিভিন্ন দেশের অর্থনীতিতে। ভেঙে পড়ছে পর্যটন শিল্প। এমনই অবস্থায় দীর্ঘ লকডাউনের পর ধীরে ধীরে স্বাভাবিকের পথে ফিরছেন অনেকেই। কিন্তু মানুষ বর্তমানে কতটা ভ্রমণমুখী সেই প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। 

এমনই অবস্থায় বড় ঘোষণা করল মলদ্বীপব। খুলে দেওয়া হচ্ছে পর্যটকদের দরজা। তবে মাথায় রাখতে হবে বেশকিছু বিষয়। পর্যটকদের জানাতে হবে তাঁরা করোনাতে আক্রান্ত হননি। পর্যটনে গিয়ে তাঁদের সম্পূর্ণ লকডাউন পরিস্থিতিতেই থাকতে হবে। মানতে হবে গাইডলাইন। যদি লকডাউন বাড়ার কারণে ভিসা নিয়ে সমস্যা দেখা দেয়, তবে তার ভায় থাকবে হোটেল কতৃপক্ষকেই। পাশাপাশি ভ্রমণ কালিন যদি কারুর শরীরে করোনা ধরা পড়ে তাহলে ভার নিতে হবে হোটেল কতৃপক্ষকেই। 

আরও পড়ুনঃ এয়ারটেল গ্রাহকদের জন্য সুখবর, উন্নতমানের ফোরজি নেটওয়ার্ক পরিষেবা দিতে অনবদ্য উদ্যোগ সংস্থার

বুধবার প্রকাশ্যে এক বিবৃতিতে জানানো হল ১৫ জুলাই থেকে খুলে দেওয়া হবে হোটেল। সেখানে শুরু হবে স্যানিটাইজেশনের কাজ। পর্যটকদের জন্য মলদ্বীপ খুলছে ১ অগাস্ট। সব রকমের সতর্কতা মেনে চলা হবে। এমন কী মানুষের স্বাস্থ্যের কথা ভেবে উন্নত মানের কোয়ারেন্টাইন লাইফ যাতে পর্যটকেরা উপভোগ করতে পারেন, তেমন ব্যবস্থাই নেওয়া হবে। তবে অনত্র যাওয়া যাবে না, স্পষ্ট করে জানিয়ে দেওয়া হয় রাষ্ট্রপতীর পক্ষ থেকে।