জীবনের স্রোত সব সময় এক রকম থাকে না। জীবনে চলার পথে চরাই-উতরাই মেনে নিতেই হবে। যে মানুষটির সঙ্গে একটা সময় অনেকটা সময় কেটেছে, যেই মানুষটির হাতে হাত রেখে শহরের অচেনা রাস্তাগুলো একদিন আপন হয়েছে। হঠাৎ করে সেই মানুষটিই একদিন খুব অচেনা হয়ে যায়। একে একে ব্লক হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ার সমস্ত একাউন্ট থেকে। জীবনে এই রকম পরিস্থিতিতে অনেক-কেই মুখোমুখি হতে হয়েছে। তবে হঠাৎ করে সেই প্রাক্তন আবার ফিরে আসতে চায় আপনার জীবনে। তখন কী সিদ্ধান্ত নেবেন আপনি। 

আরও পড়ুন- স্মৃতিশক্তি বাড়াতে প্রতিদিন খান এই ৫ খাবার, জেনে নিন কোনগুলি

এই রকম পরিস্থিতিতে অনেকেই সাত-পাঁচ চিন্তা ভাবনা না করে আবারও সম্পর্ক ঠিক করে নেন। কিন্তু আবারও কয়েকদিন পরেই শুরু হয় পুরনো সেই সমস্যা।  তাই দ্বিতীয়বার পুরনো সম্পর্কে এগোনোর আগে অবশ্যই মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি।

বাস্তব চিন্তা ভাবনা করুন

যদি আপনি দ্বিতীয়বার পুরনো সম্পর্কে ফিরে যাওয়ার বিষয়ে সিরিয়াস হন, তাহলে মনের যাবতীয় প্রশ্ন ও সমস্যা নিয়ে মন খুলে আলোচনা করুন। কোনও ফাঁক রাখবেন না। কারন মনে কোনও বিষয়ে সংশয় থাকলে আবারও সমস্য়া দেখা দেবে।

আরও পড়ুন- একটুতেই চোখে জল, তবে আপনার মধ্যে রয়েছে বিশেষ এই গুণগুলি

অতীতের কথা ভুলতে হবে

অতীতের স্মৃতি আকড়ে ধরে বসে থাকলে, কোনও দিন কোনও সম্পর্কে ভালো থাকতে পারবেন না। তাই যত দ্রুত সম্ভব সেগুলি ভুলে যাওয়ার চেষ্টা করুন। 

সম্পর্ক ভেঙ্গে যাওয়ার কারন কী ছিল

পুরনো সম্পর্কে নতুন ভাবে শুরু করার আগে নিজেকেই নিজে প্রশ্ন করুন কেন আপনাদের সম্পর্কটা ভেঙ্গে গিয়েছিল। 
সম্পর্ক ভেঙ্গে গিয়েছে মানেই সব সময় সে ক্ষেতে বিপরীতে থাকা মানুষটির দোষ থাকতে হবে এমন কোনও কথা নেই। তাই আপনার তরফে যদি কোনও ভুল থেকে থাকে সেটিও দুজনের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে স্বীকার করে নিন। একইভাবে সঙ্গীর কোনও আচরণ, কথা আপনার খারাপ লেগে থাকলে সেটাও জানান। যাতে ভবিষ্যতে দুজনকে কখনও এমন পরিস্থিতির মুখে আর পরতে না হয়।

সন্দেহ করা বন্ধ করুন

ভালোবাসা মানেই সেখানে আগলে পরস্পরকে আগলে রাখার প্রবণতা থাকে। এই প্রবণতা মাত্রাতিরিক্ত হলেই সেই সম্পর্কে দানা বাঁধে বিরক্তি ও সন্দেহ। যা একটি মজবুত সম্পর্ককে নিমেষে নষ্ট করে দিতে পারে। তাই যদি সারা জীবন একে অপরের পরিপূরক হয়ে থাকতে চান, মন থেকে সন্দেহ দূর করুন। খারাপটা ভেবে নেওয়ার সঙ্গীর জায়গায় নিজেকে ভেবে দেখুন, সেই পরিস্থিতিতে আপনি থাকলে আপনি কী করতেন।