সারাদিন অফিসে টানা ৯ থেকে ১০ ঘন্টা কাজ করার পর শরীরের প্রতি যত্ন নেওয়া হয় না। এই ধরনের কর্মব্যস্ত রুটিনের জেরেই স্বাস্থ্যহানির আশঙ্কা বৃদ্ধি পাচ্ছে দিনের পর দিন। ব্যস্ত সময়ে আমরা সবথেকে বেশি অবহেলা করি খাওয়াতে। মাত্রাতিরিক্ত স্ট্রেস ও অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা ও অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাসের কারনে প্রতিনিয়ত ওজন কমার বদলে তা বেড়ে চলেছে। ফলে ভুগতে হচ্ছে নানান শারীরিক সমস্যায়। তাই রোজকার এমন জীবনযাত্রায় সময় বাঁচিয়ে ভরপুর পুষ্টি রাখতে লাঞ্চবক্সে অবশ্যই রাখুন এই পদগুলি।

চটজলদি লাঞ্চবক্স ভরতে বানিয়ে নিন পাস্তা। সব্জি দিয়ে পাস্তা, লাঞ্চের জন্য একেবারে ঠিকঠাক। পছন্দসই সবজি, টোম্যাটো, মাশরুম, চিকেন, দিয়ে পাস্তা বানানো খুবই সোজা, সময়ও লাগে খুব কম। আর পেটও ভরবে।

আরও পড়ুন- অযথা খরচ নয়, বাড়িতেই সহজে করে নিন হেয়ার স্পা

লাঞ্চের জন্য চটজলদি অথচ স্বাস্থ্যকর খাবার হল এগ স্যান্ডউইচ। প্রয়োজনে আপনি ভেজ স্যান্ডউইচও খেতে পারেন। ছন্দের সব্জির সঙ্গে স্ক্র্যাম্বেলড এগও মিশিয়ে খুব তাড়াতাড়ি বানিয়ে নেওয়া যায় এই পদ। 

যদি সবজি পছন্দ করেন তবে অফিস লাঞ্চের জন্য অবশ্যই পুষ্টিকর খাদ্য হল সেদ্ধ সবজি। পছন্দ মত সমস্ত সবজি সেদ্ধ করে তাতে সামান্য বাটার ও গোলমরিচ ছড়িয়ে ঢুকিয়ে নিন লাঞ্চ ব্যাগে। অনেকেই আছেন যারা সবজি একদম পছন্দ করেন না। তারা অবশ্যই সবজির বদলে লাঞ্চে রাখতে পারেন চিকেন স্ট্যু। সঙ্গে নিয়ে নিন দুটি টোস্ট।

আরও পড়ুন- শরীরে আয়রনের অভাব রয়েছে, বুঝবেন কী ভাবে জেনে নিন

চটজলদি লাঞ্চবক্স ভরাতে রাখতে পারেন টক দই। দইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে নিন ড্রাই ফ্রুটস।  এছাড়া বানিয়ে নিতে পারেন পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ডালিয়া। পছন্দমতন সবজি দিয়ে খিচুড়ির মত বানিয়ে ভরে নিন বক্সে। 

এছাড়াও আপনি লাঞ্চের জন্য চটজলদি বানিয়ে নিতে পারেন ভেজ অমলেট। মাশরুম, চিকেন, পালং বা সবজি দিয়ে ডিম দিয়ে বানিয়ে নিন ভেজ অমলেট। এটি পুষ্টিকরও আর বানাতেও খুব কম সময় লাগে। এরসঙ্গে রাখতে পারেন যে কোনও ফল বা সবজির স্মুদি। যার ফলে পেটও ভরবে আর স্বাস্থ্যও ভালো থাকবে।