সারাদিনের অক্লান্ত পরিশ্রমের পর অনেকের অভ্যেস আছে রাতের বেলা স্নান করে ঘুমানো। বিশেষ করে গরম পড়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের স্নানের অভ্যেসটা যেন একটু বেশি বেড়ে যায়। আবার অনেকেই আছেন যারা রাতের বেলা শ্যাম্পু করে থাকেন আর ওই ভেজা চুলে শুয়ে পড়েন। এতে নাকি রাতের বেলা ঘুম ভাল হয়। কিন্তু শুধু রাতের বেলা নয়, দিনের বেলাতেও চুল না শুকিয়ে অনেকেই চুল বেধে নেন। এর থেকে যে কত রকমের সমস্যা হতে পারে তা আমরা নিজেরাও জানি না। নিজেরাই নিজেদের অজান্তে বিপদ ডেকে আনি। এতে চুলও ত্বকের বিভিন্ন ক্ষতি হয়। ভেজা চুলে ঘুমানোর ফলে চুল যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হয় তেমনি চুল নষ্ট হয়ে যাওয়ার অনেক বেশি সম্ভাবনা থাকে।

আরও পড়ুন-ঠান্ডার থেকে শিশুকে কীভাবে সুরক্ষিত রাখবেন, জেনে নিন ঘরোয়া টিপস...

চুলে জট হয়

শুকনো চুলের তুলনায় ভেজা চুলে বেশি জট হয়। বিশেষত ভেজা চুলে ঘুমালে জট অনেক বেশি হয়। লম্বা চুলে এই সমস্যা অনেক বেশি দেখা যায়।

চুলের কোমলতা নষ্ট

ভেজা চুল যেহেতু বেধে ঘুমানো যায় না তাই ছেড়ে শুতে হয়। এর ফলে পুরো চুল বালিশের সঙ্গে ঘষা খায়। এতে চুলের  আগের কোমলতা নষ্ট হয়ে যায়।

 

চুল ঝরা

চুলে যত জট বেশি হবে তত চুল বেশি পড়বে। ঘুম থেকে উঠে ভেজা চুল আঁচড়ানোর পর জট স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক বেশি হয়। সেই সাথে চুলের গোড়াও দুর্বল হয়ে যায়। যার ফলে চুল বেশি পড়ে।

গন্ধ হয়

ভেজা চুল বেধে রাখলে মাথা থেকে দুর্গন্ধ বের হয়। ভেজা চুলে শুয়ে পড়লে জল ও ঘাম জমে সেখান থেকে খুশকি, উকুনের মতো সমস্যা দেখা যায়। চুলের ত্বকে ছত্রাকের সংক্রমণ হয়।

চুলে ছত্রাকের সংক্রমণ

ভেজা চুল বেধে রাখলে চুলের ত্বকে ছত্রাকের সংক্রমণ হয়। ভেজা চুলও মাথার ভেজা ত্বক নিয়ে ঘুমানোর কারণে ছত্রাকের জন্ম হতে পারে। যা চুলের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।