ক্যানসার এমনই একটি অসুখ যার নাম শোনা মাত্র মানুষের মুখ ফ্যাকাশে হয়ে যায়। যিনি এই রোগের শিকার হন তিনিই যেন মনে মনে কল্পনা করে নেন তাঁর মৃত্যু নিয়ে নানা দৃশ্য। তাই এই রোগের নাম শোনা মাত্র চিকিনসা পদ্ধতি শুরু হয়ে যায়। 

ক্যানসার যত তাড়াতাড়ি ধরা পড়ব তত তার থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার সম্ভাবনা বাড়বে। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে এই রাজরোগ ধরা পড়তেই অনেকটা সময় চলে যায়। বিশেষ করে পাঁচ রকমের ক্যানসার বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই প্রথম পর্যায়ে ধরা পড়ে না। জেনে নেওয়া যাক সেগুলি কী কী- 

১) প্যানক্রিয়াটিক ক্যানসার- এই ক্য়ানসার বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই প্রথম পর্যায়ে ধরা পড়ে না। কারণ এই ক্যানসারে বাইরে থেকে কোনও ব্যথা অনুভূত হয় না।  ভিতরেই বাসা বাঁধতে থাকে এই ক্যানসার। 

২) ব্রেন ক্যানসার- এই ক্যানসার ধরা পড়তেও অনেকটা সময় চলে যায়। প্রায়ই কথা বলা জড়িয়ে যাওয়া, মাথা ব্যথা, ব্যক্তিত্বে পরিবর্তন, হাত পা কাঁপার মতো উপসর্গ দেখলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

৩) যকৃত ক্যানসার- এরও কোনও নির্দিষ্ট উপসর্গ নেই। বিশেষ করে টিউমর যদি আকারে ছোট হয় সেক্ষেত্রে ধরা পড়ার সম্ভাবনা কমে যায়। একেবারে শেষ পর্যায়ে ধরা পড়ে অনেক সময়ে। 

৪) জরায়ুর ক্যানসার- পেটের অনেকটাই গভীরে থাকার কারণে এই ক্যানসার সহজে ধরা পড়ে না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই চতুর্থ পর্যায়ে গিয়ে ধরা পড়ে এই ক্যানসার। 

৫)  কিডনিতে ক্যানসার- সাধারণ টেস্টে এই ক্য়ানসার ধরা পড়ে না। খুব সাধারণ কয়েকটি উপসর্গই এই অসুখের ইঙ্গিত দেয় যেমন কোমরে ব্যথা, প্রস্রাবে রক্ত, ক্লান্তি বোধ করা ইত্যাদি।