বাড়িতে বা বাড়ির বাইরে ক্রমেই বাড়ছে মশার উপদ্রব। তাই মশার কামড় থেকে হাজার চেষ্টার পরও নিস্তার নেই। এই অবস্থায় চুলকুনির ফলে ফুলে যাচ্ছে শরীরের  মশা কামড়ানোর অংশগুলো। এমনিতেই মশা কামড়ালে ত্বকে লাল হয়ে ফুলে যেতে দেখা যায়। তার ওপর আবার চুলকুনি, ফলেই অস্বস্তি কাটাতে উষ্ঠাগত প্রাণ।

 আরও পড়ুনঃ বাড়ছে মশার উপদ্রব! ৬টি ঘরোয়া উপায় মশা কমিয়ে ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া থেকে নিরাপদে থাকুন

জেনে নিন ঘরোয়া উপায় কীভাবে কমিয়ে ফেলবেন চুলকুনির সমস্যা
১. বরফ যদি মশা যেখানে কামড়েছে সেখানে লাগিয়ে রাখা যায় কিছুক্ষণ তবে সহজেই স্বস্তি মেলে। এতে ফোলা অংশও অনেকটা কমে যায়।
২. বেকিং সোডা জলের সঙ্গে গুলে নিয়ে পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। এবার তা তুলোর সাহায্যে কয়েকমিনিট লাগিয়ে রাখুন যে অংশে চুলকুনি হচ্ছে সেখানে। কিছুক্ষণের মধ্যেই সমস্যা মিটে যাবে।
৩. শরীরের বেশ কিছু অংশে যদি মশার কামড়ানোর ফলে অস্বস্তি অনুভুত হয় তবে হালকা গরম জল করে তাতে ২ কাপ ভিনিগার মিশিয়ে স্নান করে নিতে পারেন। এর ফলে চুলকুনি কমে যায়।
৪. মশা যে অংশে কামড়িয়েছে সেই অংশে টুফপেস্ট লাগিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই জায়গা অনেকটা ভালো হয়ে যাবে। 
৫. সাবান দিয়ে অংশটা ভালো করে ধুয়ে নিয়ে সেখানে মুধু লাগিয়ে রাখলেও চুলকুনির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। ফলেই নখের আঁচড় নয়, সহজেই চুলকুনি কমিয়ে ফেলুন।