গরমের পর কিছুটা স্বস্তি নিয়ে আসে বর্ষা। যদিও এবছর কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের মানুষ বর্ষাহীন ভাবেই কাটাচ্ছে। যেটুকু বৃ্ষ্টি হচ্ছে, তা শুধুই নিম্নচাপের জেরে। আর বৃষ্টি মানেই পায়ে কাদা জল লেগে এক সা। আর এর থেকে পায়ে ফাংগাল ইনফেকশন পর্যন্ত হতে পারে। যার ফেলে পায়ে দুর্গন্ধ ও চুলকুনির সমস্যাও হয়ে থাকে। এই সমস্য়া থেকেও মুক্তি পাওয়ার বেশ কয়েকটি ঘরোয়া টোটকা রয়েছে। জেনে নেওয়া যাক সেগুলি কী কী- 

১) কাঁচা হলুদ বাটা পায়ের ইনফেকটেড জায়গায় লাগান। এতে সহজেই উপকার পাবেন। 

আরও পড়ুনঃ ঘরোয়া উপায়েই পান একজোড়া সুন্দর পা! জানুন কী ভাবে বানাবেন ফুটস্ক্রাব

২) কাঁচা পেঁয়াজের রসও খুব উপকারী। কাঁচা পেঁয়াজের রস ভালো করে পায়ে লাগান। এতে ক্ষত তাড়াতাড়ি শুকোবে। 

৩) হেনা বা মেহেন্দি কিনে আনুন। এই হেনার পেস্ট চুলের জন্য অনেকেই ব্যবহার করেন। তবে এই পেস্ট যদি পায়ে লাগান তা হলেও উপকার পাবেন। 

৪) পুদিনা পাতা ও তুলসী পাতা বেটে তা পায়ের পাতায় লাগাতে পারেন। তুলসী পাতা অ্যান্টি সেপটিক হিসেবে কাজ করে। তাই এই টোটকা ব্যবহার করলে উপকার পাবেন। 

৫) পায়ে ইনফেকশন হলে লেবুর রসের সঙ্গে ভিনিগার মিশিয়েও ব্যবহার করতে পারেন। এতে উপকার পাবেন। 

প্রসঙ্গত, টোটকা ব্যবহার করলেই শুধু হবে না। বর্ষায় পা সুন্দর রাখতে পায়ের অতিরিক্ত যত্ন করা প্রয়োজন। পা ঢাকা জুতো পরা, কাদা এড়িয়ে চলা, নিয়মিত বৃষ্টি থেকে এসে পা পরিষ্কার করা ইত্যাদি করা প্রয়োজন। বাড়িতে পা পরিষ্কার করার জন্য হালকা গরম জলে শ্যাম্পু মিশিয়ে ভালো করে নিয়মিত পরিষ্কার করুন। নখের ভিতরে ময়লা জমতে দেবেন না।