২৫ বছরের যুবকের মুখ হয়ে গিয়েছে ৫৫ বছরের প্রৌঢ়ের। ১৮ যুবতী-র মাথা ভর্তি পাকা চুল। মুখ ভর্তি বলিরেখা। রাতারাতি এমন সব ছবি-তে এখন ছেয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই দলে কে নেই। সাধারণ মানুষের সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন সেলিব্রিটি। বিরাট কোহলি থেকে রোহিত শর্মা, কেন উইলিয়ামসন-দের মতো ক্রিকেটারদের বুড়িয়ে যাওয়া ছবি এখন ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। এমনকী, বলিউডের স্টাররাও এই দৌড়ে নেমে পড়েছেন। রয়েছেন বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির তারকারাও। 'ফেসঅ্যাপ' নামে এই অ্যাপটি রাতারাতি হিট। কিন্তু, ফেসঅ্যাপ-এর ব্যবহার ডেকে আনছে না তো কোনও নতুন বিপদ। এই নিয়েও এখন শোরগোল পড়েছে। 

বিশেষজ্ঞদের মতে এই  ধরনের অ্যাপের সাহায্যেই নাকি সরাসরি আপনার তথ্য চলে যাচ্ছে কোম্পানির হাতে। এই অ্যাপের মধ্যে লুকিয়ে থাকা বিপদ নিয়ে জোরল সওয়াল করেছেন এলিজাবেথ পটস উইন্সটেন নামে এক মহিলা-ও। তিনি টুইটারে লিখেছেন এই অ্যাপটি ফোনে ডাউনলোড  করলেই ফেসঅ্যাপ সংস্থার কাছে চলে যাবে গোপন তথ্য। এরমানে ওই সংস্থা অ্যাপ ডাউনলোডের শর্তে আপনার ফোন থেকে যে যে তথ্যগুলো বের করে নিল সেগুলিকে তারা বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করার অধিকার পেয়ে গেল। ফেসঅ্যাপ-এর এই বিপদের দিকটি বিবেচনা করে তথ্য-প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের দাবি নিজের ক্ষতি এড়াতে চাইলে অ্যাপটি ফোনে না-রাখাই ভালো।  

সোশ্যাল মিডিয়া খুললেই দেখা যাচ্ছে চেনা পরিচিত সেলিব্রিটিরা গা-ভাসিয়েছেন এই 'ফেস অ্যাপ'-কে নিয়ে। অর্জুন কাপুর, দীপিকা পাড়ুকোন থেকে বরুণ ধাওয়ান সবাই কম-বেশি জানতে চাইছেন যে বয়স বাড়লে কী রকম দেখতে লাগবে তাঁদেরকে। তাই এঁরা এখন সকলেই মজেছেন 'ফেস অ্যাপ'-এ। বলিউডের আরও এক তারকা প্রীতি জিন্টা-ও 'ফেস অ্যাপ'-এ নিজের বুড়িয়ে যাওয়া ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন। কিন্তু সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হলো বছর ২ আগেই এই 'ফেস অ্যাপ' বাজারে এসেছে। কিন্তু, বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ফাইনাল ম্যাচের পরের দিন টুইটার-এ বিরাট কোহলি-কেন উইলিয়ামসনদের বুড়িয়ে যাওয়া ছবি প্রকাশ হতেই এই অ্যাপটি নিয়ে এখন পাগলপারা উন্মাদনা ।