শাজাহান আলি, পশ্চিম মেদিনীপুর-এনআইএ আদালতের হাজিরা এড়িয়ে পরবে যোগ দিলেন তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক ছত্রধর মাহাতো। আদালতকে আবারও তোয়াক্কা না করেই যোগ দিলেন গরু খুঁটান উৎসবে। ঝাড়গ্রাম থেকে লোকাল ট্রেন পরিষেবা এখনও চালু না হওয়ায় আদালতে হাজিরা দিতে পারেননি বলে জানিয়েছেন ছত্রধর। অথচ, গাড়িতে করে কলকাতায় কালী পুজোর উদ্বোধন করেছেন বলে সূত্রের খবর।

আরও পড়ুন-বিজেপির নজর নীলবাড়িতে, একুশের নির্বাচনের রণ কৌশল ঠিক করতে বাংলাকে পাঁচ জোনে ভাগ

কুড়মি সেনার ডাকে পশ্চিম মেদিনীপুরের গোয়ালতোড়ে গুরু খুঁটান উৎসবে যোগ দিয়েছিলেন ছত্রধর। এলাকার পিংবনির পাটনাশোলে কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের সৌজন্যে ও কুড়মি সেনার পরিচালনায় ওই প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিছি ছিলেন ছত্রধর মাহাতো। সিপিএম কর্মী খুন ও রাজধানী এক্সপ্রেস মামলায় খাঁড়া ঝুলছে ছত্রধরের ঘাড়ে। এর আগেও এনআইএ আদালতের হাজিরা এড়িয়েছেন ছত্রধর। তিনি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বলে দাবি করে আদালতে গরহাজির ছত্রধর। তাঁর দাবির সত্যতা বিচার করতে ঝাড়গ্রামেও তদন্ত গিয়েছিল এনআইএ-র দল। এবারও আদালেতর হাজিরা এড়িয়ে গরু খুঁটান উৎসবে দেখা গেল ছত্রধর মাহাতোকে। যদিও, তাঁর আইনজীবীর দাবি, রাজ্যে লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু হলেও, ঝাড়গ্রাম থেকে হাওড়া লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু হয়নি। সেকারণে তিনি আদালতে হাজরি দিতে পারেননি বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন-ব্রাত্য 'বাঙালি', বাংলার ভোট-যুদ্ধ জয়ে 'অবাঙালি' 'পঞ্চপান্ডব' পাঠাল বিজেপি

এদিন কুড়মিদের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তাঁদের দাবি পূরণের আশ্বাস দেন ছত্রধর। সেখানে তাঁকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয় অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে। নিজেদের সমাজ সম্পর্কে কুড়মি যুব সমাজকে সচেতনতার বার্তা দেন ছত্রধর। নিজেদের সমাজকে উদ্বুদ্ধ করতে আহ্বান জানান তিনি। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, কুরমী সেনার জেলা সম্পাদক তন্ময় মাহাতো।