শাজাহান আলি, পশ্চিম মেদিনীপুর-বাঁকুড়া সফরে গিয়ে আলু-পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি সহ একাধিক ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। কৃষি আইনের তীব্র বিরোধিতা করে একের পর এক তোপ দেগেছেন মুখ্যমন্ত্রীকে। এই অবস্থায় মমতার এই জঙ্গলমহল সফরকে তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করলেন দিলীপ ঘোষ।

আরও পড়ুন-আকাশ ছোঁয়া আলু-পেঁয়াজের দাম, নয়া কৃষি আইন নিয়ে বাঁকুড়া থেকে কেন্দ্রকে তোপ মমতার

সোমবার পশ্চিম মেদিনীপুরে গিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ। হিন্দু যুব বাহিনীর দ্বারা আয়োজিত কেরানিতলায় জগদ্ধাত্রী পুজোয় যোগ দিয়েছিলেন। সেখানেই মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা করেন দিলীপ। তিনি বলেন, আমাদের মুখ্যমন্ত্রী জঙ্গলমহলে এসেছিলেন। উনি অনেক প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন দশ বছর পরে। যখন সুযোগ ছিল তখন কিছু করতে পারলেন না। এখন হেরে যাবেন বুঝতে পেরে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। জঙ্গলমহলের মানুষকে অনেক বোকা বানিয়েছেন। এবার শুধরে যান। শেষ বয়সে অন্তত পরিবর্তন হোক।

আরও পড়ুন-করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক মোদির, তার আগে প্রধানমন্ত্রীকে তোপ মমতার

পাশাপাশি, মিম-তৃণমূল প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ''মিম মনে করছে তার কাজটা তৃণমূল করে দেবে। মিম সম্প্রদায়িক রাজনীতি করে। তৃণমূলও সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করে। মিম-এরই একমাত্র তৃণমূলের উপর ভরসা আছে। রাজ্যের মানুষের নেই। তাই মিম আর টিএমসি কাছাকাছি এসেছে। এরকম বাকি দলও তৃণমূলের সঙ্গে যাবেন, যাঁরা এই রাজ্যকে বাংলাদেশ বানাতে চাইছেন। গরিব কৃষকদের প্রাপ্য টাকা আটকে রেখেছেন''। তৃণমূলের তিন নেতাকে নোটিস পাঠিয়েছে ইডি। এবিষয়েও তোপ দাগেন দিলীপ ঘোষ। বলেন, ''সবে তো শুরু হয়েছে। আরও নোটিস আসবে। এর জবাব মানুষকে দিতে হবে''। পশ্চিম মেদিনীপুরে মন্তব্য দিলীপ ঘোষের।