সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর- করোনা আগেই সর্বস্বান্ত করেছিল। ঘূর্ণিঝড়ে আমফানের তাণ্ডবে আধমরা হয়ে গিয়েছিল সাধারণ মানুষ। এই অবস্থায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ত্রাণের ব্যবস্থা করেছে সরকার। সেখানে ভাগ বসানোর চেষ্টা করল প্রতারকরা। পূর্ব মেদিনীপুর রামনগর ২ নম্বর ব্লকে এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। নিজেকে বিডিও অফিসের কর্মী পরিচয় দিয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের থেকে টাকা দাবি করে ওই ব্যক্তি। গ্রামবাসীদের সন্দেহ হওয়ায় পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

আরও পড়ুন-সেপ্টেম্বরেও রাজ্য়ে তিন দিন পূর্ণ লকডাউন, কোন কোন তারিখ জেনে নিন বিস্তারিত

জানাগেছে, প্রিয়ব্রত আচার্য নামে ওই ব্য়ক্তি রামনগর ২ নম্বর ব্লকের কাদুয়া অঞ্চলে যাঁরা আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাঁদের বাড়ি বাড়ি যান। গ্রামবাসীদের কাছে ৫ হাজার টাকা দাবি করে প্রিয়ব্রত। সে বলে, আমরাই আপনাদের সরকারি টাকা পেতে সাহায্য করেছি। তার কথা শুনে কিছু পরিবারে তাকে টাকাও দিয়ে দেয়। এরপর গ্রামে বিষয়ি জানাজানি হলে সন্দেহ হয় তাঁদের। রামনগর থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে প্রিয়ব্রত আচার্যকে গ্রেফতার করে।

আরও পড়ুন-মহামারি আবহেই নিট ও জেইই পরীক্ষায় করোনা স্বাস্থ্যবিধিতে জোর, প্রকাশ একগুচ্ছ নিয়মনীতি

হাতেনাতে ধরা পড়ার পর, টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করে ওই ব্যক্তি। সে পালটা দাবি করে, রামনগর ২ নম্বর ব্লকের আইডিও-র কথা মতো সে আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে টাকা চাইতে এসেছিল। তার কথা মতো নিজেকে বিডিও অফিসের কর্মী বলে পরিচয় দেয়। যদিও, পুলিশ সূত্রে জানা যায় মইতানা গ্রাম পঞ্চায়েতের চতুর্থ শ্রেণির কর্মী প্রিয়ব্রত আচার্য।

আরও পড়ুন-ভেন্টিলেশনে থেকে মৃত্যুর সঙ্গে যুঝে প্রসব করলেন মা, কোভিডের ধূসর বিশ্বে একমাস পর ঘটল অলৌকিক

ঘটনায় রামনগর ২ নম্বর ব্লকের বিডিও অর্ঘ ঘোষ জানান, রামনগর থানার ওসিকে গোটা বিষয়টি তদন্ত করতে বলেছি। আমাদের তরফে তদন্তের জন্য সবরকম সাহায্য করা হবে।