আশেপাশে কোনও জঙ্গল নেই। ময়ূর এল কোথা থেকে? শোরগোল পড়ে গিয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরে বেলদায়। আপাতত পাখিটিকে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন বনদপ্তরের বেলদা রেঞ্জের কর্মীরা। পরে খড়গপুরের হিজলি রেসকিউ সেন্টারে পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: জঙ্গল থেকে বেরোতেই বিপদ, কুকুরের তাড়া খেয়ে খাল পড়ল হরিণ

বাস-ট্রেন চলছে না, স্কুল-কলেজ-অফিসও বন্ধ। বাড়ি থেকে বেরনোর কোনও উপায় নেই। লকডাউনের জেরে সমস্যায় পড়েছেন সাধারণ মানুষ। বৃহস্পতিবার সকালে বেলদার একারুখী গ্রামের বাসিন্দারা দেখেন, রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছে একটি ময়ুর! ঘটনাটি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। শেষপর্যন্ত গ্রামবাসীরাই ধাওয়া করে মূয়রটিকে ধরে ফেলেন। খবর দেওয়া হয় স্থানীয় জোড়াগেড়িয়া ফাঁড়িতে। জানা গিয়েছে, পুলিশ গিয়ে গ্রাম গিয়ে ময়ুরটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। পরে নিয়মমাফিক পাখিটিকে বনদপ্তরের হাতে তুলে দেওয়া হয়। 

আরও পড়ুন: অবলা প্রাণীদের উপর 'প্রতিশোধ', খাবারে বিষ মিশিয়ে 'খুন' পথকুকুরদের

আরও পড়ুন: সরকারি হাসপাতালে ঢুকে মহিলার 'শ্লীলতাহানি', চাঞ্চল্য বাঁকুড়ায়

পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদা রেঞ্জের অফিসের কর্মী কিরণ চন্দ বলেন, 'ময়ুরকে হত্যা করা বা আটকে রাখা আইনত নিষিদ্ধ। স্থানীয় বাসিন্দাদের আমার বুঝিয়েছি, এলাকায় যদি ময়ুর থাকে, তাহলে উপকারই হবে।' গ্রামবাসীদের একাংশের অনুমান, কেউ হয়তো বাড়িতে ময়ুরটিকে পুষেছিলেন। কোনওভাবে পোষ্যটি বাইরে বেরিয়ে এসেছে।