শুক্রবার দুপুরে হঠাৎ আতঙ্ক খড়গপুর প্ল্যাটফর্মে।  খড়গপুর প্ল্যাটফর্মের ট্রেন দাঁড়ানো মাত্রই রেল পুলিশের তৎপরতা সমস্ত যাত্রীদের ট্রেন থেকে নামানোর। আতঙ্কিত যাত্রীরা যে যেদিক থেকে পেরেছেন হুড়মুড়িয়ে নেমেছেন। সকলকে দাঁড় করিয়ে পরিচয় পত্র পরীক্ষা করল রেল পুলিশ। জানা গিয়েছে, ব্যাঙ্গালোর থেকে কোনও এক করোনা আক্রান্ত ট্রেনে করে পালাচ্ছে আসামে। তল্লাশি করেও অবশ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি তাঁকে।

আরও পড়ুন, আরও ১ করোনা আক্রান্ত কলকাতায়, ভয়ে কাঁপছে মহানগর

রেল দপ্তর সূত্রে খবর,আসামের বাসিন্দা বছর কুড়ির যুবকের নাম বুলেন কুজুর। ব্যাঙ্গালুরুতে একটি বেসরকারি ফার্মে ঠিকাদারের অধীনে কাজ করত সে। কয়েকদিন আগে তার সর্দি কাশি ও জ্বরের উপসর্গ দেখা দেওয়ার পর স্থানীয় একটি স্বাস্থ্য কেন্দ্রে হোম কোয়ারেন্টাইন এ থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল চিকিৎসকদের পক্ষ থেকে। কিন্তু সেখান থেকে সে পালায়। বেঙ্গালুরু গুয়াহাটি এক্সপ্রেসে করে সে পালাচ্ছে বলে স্থানীয় প্রশাসন জানতে পেরেছিল। এরপরই সেই খবর ছবিসহ, রেল দপ্তর কে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল  উড়িষ্যাতে ট্রেনটিকে থামিয়ে কিছুক্ষণ খোঁজার চেষ্টা হয়। তবে পুরোপুরি তল্লাশি সম্ভব না হওয়াতে পুনরায় খড়গপুর প্ল্যাটফর্মে সেই তল্লাশি শুরু হয়। 

আরও পড়ুন, করোনা টুঁটি টিপে ধরার আগেই মমতার পদক্ষেপ, রাতারাতি বাড়ছে আইসোলেশন বেডের সংখ্যা

জানা গিয়েছে, সকলকে প্লাটফর্মে নামে পরিচয় পত্র পরীক্ষা হয়। সেই পর্বে পুরো ট্রেনটিকে জীবাণুমুক্ত করার কাজও চলে। সকলের পরিচয় পত্র পরীক্ষা করে ছেড়ে দেওয়া হয় ট্রেনটি। তবে তার সন্ধান মেলেনি।খড়গপুর জংশন এর দায়িত্বপ্রাপ্ত স্টেশন ম্যানেজার দুর্গেশ কুমার পান্ডা জানিয়েছেন-' ঠিক খবর ছিল। কিন্তু সম্ভবত মাঝ রাস্তায় কোথাও ট্রেন থেকে নেমে পড়েছে সে।'

আরও পড়ুন, করোনা মোকাবিলায় স্টেট রিলিফ এমার্জেন্সি ফান্ড গঠন মুখ্যমন্ত্রীর, হাজিরা কমানোর আবেদন বেসরকারি সংস্থা