শাহাজাহান আলি, মেদিনীপুর: অবলা প্রাণীদের উপর এত আক্রোশ কীসের! শরীরে বিষক্রিয়ায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছে ১১টি পথ কুকুর। দুটি কুকুর মারাও গিয়েছে। খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনাস্থল, মেদিনীপুর শহর। থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন পশুপ্রেমীরা।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ফলতার তৃণমূল বিধায়কের, শোকপ্রকাশ মমতার

জানা গিয়েছে, গত কয়েক দিন ধরে মেদিনীপুরে শহরের বড়মানিকপুর এলাকায় রাস্তার কুকুরগুলি অস্বাভাবিক আচরণ করছিল। স্থানীয় বাসিন্দা বাসন্তি দাস জানিয়েছেন, 'কুকুরগুলি কেমন যেন ঝিমিয়ে পড়ছে। খাবার দিলেও খাচ্ছে না। কয়েকটি কুকুরের মুখ থেকে লালা পড়তেও দেখেছিলাম। তখনই বুঝেছিলাম, কেউ বিষাক্ত কিছু খাইয়ে দিয়েছে।' রবিবার রাতেই পশুপ্রেমীদের খবর দেন এলাকার লোকেরা। কমপক্ষে ৯টি কুকুরে মুখ থেকে লালা পড়তে দেখেন তাঁরা। জানা যায়, দুটি কুকুর মারা গিয়েছে।  দেহ ফেলে দেওয়া হয়েছে লোকালয়ে পাশে ঝোপে। আর দেরি করেননি, রাতে অসুস্থ কুকরগুলি চিকিৎসা শুরু করে দেন পশুপ্রেমীরা। পশুপ্রেমী সংগঠনের তরফে শিবু রানা বলেন, 'আমরা কেউ বা কারা ইচ্ছাকৃতভাবে খাবারের সঙ্গে মিশিয়ে কুকুরগুলি বিষ খাইয়ে দিয়েছে। দুটি কুকুর মারা গিয়েছে। বাকীগুলি অবস্থাও ভালো নয়। আমার কোতুয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।'

আরও পড়ুন: কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে 'দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম্য', বাধা দেওয়ার আক্রান্ত পরিযায়ী শ্রমিক

উল্লেখ্য, মেদিনীপুর শহরে এমন ঘটনা, কিন্ত এই প্রথম নয়। বছর খানেক আগে শহরের পাটনাবাজার এলাকায় অ্যাসিড হামলার মুখে পড়ে এক কুকুর। এমনকী, গরু ও বিড়ালকে বিষ খাওয়ার মতো নৃশংস ঘটনাও ঘটেছে। তখনও মেদিনীপুর শহরের বিভিন্ন প্রান্তে  খোদ পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে সচেতনতামূলক অভিযান চালিয়েছিল পুলিশ। কিন্তু তাতেও কি আদৌ কোনও কাজ হয়েছে? প্রশ্ন উঠেছে।