আবারও পাকিস্তানে যৌন লালসার শিকার হল এক নাবালিকা। ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে। জানা গিয়েছে, সেখানে গণধর্ষণের শিকার হল এক ১৩ বছরের হিন্দু কিশোরী। 

জানা গিয়েছে, মাত্র তেরো বছর বয়সী ওই কিশোরীকে জোড় করে মদ্যপান করিয়ে, তাঁকে দুজন যুবক মিলে তাঁকে ধর্ষণ করে। এই গণধর্ষণের ঘটনায় ওই দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পাকিস্তানের পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ৭ জুন একটি এফআইআর দায়ের করা হয়, যেখানে বলা হয়, ওই হিন্দু কিশোরীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। পাকিস্তানের একটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা গিয়েছে, ঘটনার দিন একটি মুদিখানার দোকান থেকে জিনিস নিয়ে বাড়ি ফিরছিল। সেইসময় তাকে ডেকে নিয়ে যায় ওই দুই যুবক। মনে করা হচ্ছে, সেই সময়েই তাকে জোড় করে ধর্ষণ করা হয়েছে।

নামমাত্র খরচে কিনতে পারেন বউ, বিয়ে করতে পারেন মাত্র একদিনের জন্য

অনেকক্ষণ ওই কিশোরী বাড়ি না ফেরায় খোঁজ করতে বেরোতে তাঁর বাবা ও দাদা। বাড়ির কাছাকাছি একটি সুগার মিলের সামনেই ওই কিশোরীকে অবচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে তাঁকে উদ্ধার করে তার বাবা ও দাদা। এরপর জ্ঞান ফিরলে তার মুখ থেকে ধর্ষণের কথা জানতে পেরে পুলিশের দ্বারস্থ হয় তাঁরা. সেই মর্মেই দায়ের হয় এফআইআর। ইতিমধ্যেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দোষীর কঠোর শাস্তির দাবী করেছেন ওই কিশোরীর বাড়ির লোক।