দিন কয়েক আগেই মাসুদ আজহারকে ভারত নতুন সন্ত্রাসবিরোধী আইন প্রয়োগ করে জঙ্গি হিসেবে ঘোষণা করেছে। কিন্তু নতুন পাওয়া গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী নিদারুণ অসুস্থ মাসুদ। তার বদলে এখন জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠী চালাচ্ছে এক নতুন নেতা। এর উপরই এখন নজর রাখা উচিত বলে মনে করছে ভারত।

জানা গিয়েছে রেচনতন্ত্রের সমস্যায় ভুগছে মাসুদ আজহার। বাহাওয়ালপুরে তাকে গৃহবন্দি করে রেখেছিল পাকিস্তান। সেই সময়ই তার শরীরের অবস্থার অবনতি হয় বলে ধারণা ভারতীয় গোয়েন্দাদের। তাঁদের দাবি, বর্তমানে জইশ-এর প্রতিদিনের কাজ কর্ম দেখার মতো অবস্থায় নেই আজহার। তার উপর বালাকোটে ভারতের বিমান হানার পর থেকে তার নিরাপত্তা নিয়ে জইশ বেশ চিন্তিত। তাই তাকে একপ্রকার লুকিয়ে রাখা হয়েছে।

তার অনুপস্থিতিতে জইশ-কে নেতৃত্ব দিচ্ছে এখন তার ভাই আব্দুল রউফ আসগর। এই আসগর কিন্তু ভারতের অপরিচিত নয়। ২০০১ সালে আইসি - ৮১৪ বিমান হাইজ্যাক করে আজহার-সহ তাদের আরও বেশ ক.য়েকজন বন্দি সদস্যকে মুক্ত করেছিল জইশ। সেই বিমান অপহরণের মূল পরিকল্পনা করেছিল এই আসগরই। এখন সে আজহারের মতোই প্রতি শুক্রবার ধর্মোপদেশের নামে যুবদের সন্ত্রাসের পাঠ দেয়। জইশ-এর জন্য তহবিল সংগ্রহের কাজ করে। সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের পরিকল্পনা করে।

ভারতীয় গোয়েন্দারা জানাচ্ছেন এখন কার্যত জইশ পরিচালিত হচ্ছে আসগরের হাতেই। আইএসআই নাকি ৩৭০ ধারা বাতিলের পর তাকেই ভারতের জম্মু-কাশ্মীরের অশান্তি ছড়ানোর দায়িত্ব দিয়েছে।