তিন দিনের মার্কিন সফরে গিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেখানে গিয়ে তাঁর বক্তৃতায় উঠে এল নওয়াজ শরিফ-এর প্রসঙ্গ। এদিন ওয়াশিংটন ডিসিতে এসে তিনি দাবি করেন, নওয়াজ শরিফ জেলে ঠান্ডা ঘরে বসে বাড়ির তৈরি খাবার খাচ্ছেন, টেলিভিশন দেখছেন। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, একজন অপরাধীর এমন বিলাসিতার বিরুদ্ধে দেশে ফিরেই কড়া পদক্ষেপ নেবেন তিনি।

এদিন ওয়াশিংটন থেকে সম্প্রচারিত পঞ্চাশ মিনিটের বক্তৃতায় ইমরান বলেন যে, নওয়াজ শরিফ জেলে বসেই বাড়ির খাবার খেতে চায়, জেলের মধ্যেই শীতাতপ নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা থাক এমনটাই চান তিনি। কিন্তু দেশে 
যেখানে অর্ধেক মানুষই টেলিভিশন এবং এয়ার কন্ডিশন ছাড়াই বসবাস করেন, সেখানে তাঁর এই বিলাসিতা মানায় না। 

আরও পড়ুন- পাক শাসন থেকে মুক্তি ঘটুক বালুচের, ওয়াশিংটনেই ইমরানের সভায় উঠল দাবি

আরও পড়ুন- ইমরানের মার্কিন দৌত্য, খুলবে কি আটকে থাকা অনুদানের আগল

তিনি  আরও বলেন এবার দেশে ফিরে গিয়ে নওয়াজ শরিফের মতো অপরাধী যাতে কোনও শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ঘর বা টেলিভিশন দেখার মতো সুযোগ সুবিধা না পায় সেই বিষয়টাই নিশ্চিত করবেন তিনি। প্রসঙ্গত, ৬৯ বছরের প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ আল আজিজিয়া স্টিল মিম মামলায় জড়িত থাকার অপরাধে সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত। বর্তমানে তিনি লাহরের কোট লাখপত জেলে বন্দি। এদিন তিনি আরও বলেন পিএমএল-এন নেত্রী বিষয়টি নিয়ে আপত্তি তুলতে পারেন।

প্রসঙ্গত এদিন তাঁর বক্তৃতায় অংশ নিতে ওয়াশিংটন ডিসির এরিনা স্টেডিয়ামে উপস্থিত ছিলেন প্রায় ৩০,০০০ পাকিস্তানি। যদিও স্টেডিয়ামটি ২০,০০০ মানুষের ভার বহনে সক্ষম, তবুও তাঁর বক্তৃতা শুনতে এদিন অগণিত পাকিস্তানির ঢল নেমেছিল এরিনা স্টেডিয়ামে।