ফের হারিম শাহ বোমা ধেয়ে এল ইমরান খান মন্ত্রিসভার দিকে। অবস্থা যেদিকে এগোচ্ছে তাতে ইমরান ঘনিষ্ঠ এই বিতর্কিত পাক টিকটক তারকা-ই বর্তমান পাক সরকার-এর পতনের প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারেন। দিন কয়েক আগেই পাক রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ-এর বিরুদ্ধে তাঁকে নগ্ন ভিডিও পাঠানোর অভিযোগ উঠেছিল। এবার তাঁর মন্ত্রীসভার আরও এক মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হারিমের সঙ্গে অশ্লীল ভিডিও রেকর্ডের অভিযোগ উঠল। আর এই প্রসঙ্গ আসতেই টিভি সঞ্চালককে থাপ্পর মাড়লেন পাক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরি।   

সম্প্রতি পাকিস্তানের এক বিশিষ্ট সাংবাদিক মুবাশির লুকমান-এর টেলিভিশন শো-তে আরেক সাংবাদিক রাই সাকিব খারাল দাবি করেন টিকটক তারকার কাছে ফাওয়াদ চৌধুরির বেশ কিছু অশ্লীল ভিডিও রয়েছে। তারমধ্যে একটি ভিডিও হারিম ইন্টারনেটে ফাঁসও করে দিয়েছেন।

দেখে নেওয়া যাক এরকমই এক ভিডিও -

এরপরই এক বিয়েবাড়িতে মুবাশির লুকমান-এর সঙ্গে দেখা হয় পাক মন্ত্রীর। হারিম প্রসঙ্গে তাঁকে প্রশ্ন করতেই সপাটে মুবাশিরকে থাপ্পর মারেন ফাওয়াদ চৌধুরি। তাঁর নিরাপত্তারক্ষীরাও পরে তাঁকে উত্তম-মধ্যম দেন বলে অভিযোগ। এই ঘটনার কথা পাক সংবাদমাধ্যমে ফাঁস হতেই ফাওয়াদ টুইট করে মুবাশির লুকমান-কে 'সাংবাদিকের নামে কলঙ্ক' বসলে অভিহিত করেন। শুধু তাই নয়, তিনি বলেন, 'মুবাশির লুকমানের মতো লোকদের সাংবাদিকতার সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই। তাঁর আসল রূপটা প্রকাশ করা সবার কর্তব্য'।

আরও পড়ুন - ফের সেক্স স্ক্যান্ডাল, নগ্ন ভিডিও পাঠিয়ে ইমরানের মুখ পোড়ালেন পাক রেলমন্ত্রী

এতেও অবশ্য থাপ্পর বিতর্ক থামেনি। সাংবাদিকের গায়ে হাত তোলা নিয়ে পাক সাংবাদিক মহলে তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়েছে। এরপর মঙ্গলবার নিজের কাজের সাফাই দিয়েছেন পাক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী। তাঁর যুক্তি মন্ত্রী ও রাজনীতিবিদের আগেও তিনি একজন মানুষ। তাই ব্যক্তিগত আক্রমণ তিনি কখনই সহ্য করবেন না। কেউ এরকম ভূয়ো অভিযোগ করলে তিনি ভবিষ্যতেও একইভাবে প্রতিক্রিয়া জানাবেন।

আরও পড়ুন - বলিউডে সুযোগ পেয়েছিলেন ইমরান, কোন বিখ্যাত অভিনেতা ডেকেছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী-কে

ভবিষ্যতে তিনি কি করবেন তা সময় বলবে। তবে অতীতেও তাঁর সাংবাদিককে থাপ্পর মারার রেকর্ড রয়েছে। গত বছর জুন মাসে আরও একটি বিয়েবাড়িতে তিনি সামি ইব্রাহিম নামে এক পাক সাংবাদিক-কে একই রকম কারণে থাপ্পর মেরেছিলেন।

আরও পড়ুন - উপদেশ নয় নিজের দেশে সংখ্যালঘুদের রক্ষা করুক পাকিস্তান, কড়া প্রতিক্রিয়া মোদী সরকারের

তবে হারিম শাহ কিন্তু ইমরান ঘনিষ্ঠ হয়েও ক্রমেই ঘরশত্রু বিভীষণ হয়ে উঠছেন। প্রথমে পাক বিদেশ দপ্তরের কনফারেন্স রুমের ভিতর থেকে তিনি টিকটক ভিডিও করে বিতর্ক বাধিয়েছিলেন। মহম্মদ আলি জিন্নার প্রতিকৃতির সামনে রাখা সভাপতির চেয়ারে বসতেও দেখা গিয়েছিল তাঁকে। তারপর দিন কয়েক আগে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে পাক রেলমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর একটি ভিডিও কলের ফুটেজ ফাঁস হয়ে যায়। সেই কথোপকথনে শোনা গিয়েছিল শেখ রশিদ তাঁকে নগ্ন ভিডিও পাঠাতেন। ওই ভিডিও ফাঁস হওয়ার পর থেকে তাকে প্রাণের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে দাবি হারিমের। তাই তিনি বর্তমানে কানাডায় আছেন।
আরও পড়ুন - বিয়ে করতে দেশে ফিরেই খুন শিখ যুবক, পাকিস্তানে ক্রমে বাড়ছে সংথ্যালঘুদের উপর হামলা