পাক নেতাদের সমাবেশে চলছে গুরুগম্ভীর বৈঠক। সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে তার লাইভ স্ট্রিমিংও। কিন্তু হঠাৎই হল ছন্দপতন। লাইভ স্ট্রিমিং চলাকালীনই মোবাইলের ক্যাট ফিল্টারটি চালু করা রয়েছে, সেদিকে চোখ যায়নি কারওরই। ফেসবুক লাইভে পাক শাসকদের বিড়ালের ফিল্টারে দেখে রীতিমতো হাসির রোল উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়ায়। ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, পাক রাজনীতিবিদ শওকত ইউসুফজাই-কে ওই লাইভে দেখা গিয়েছে যে, তিনি বক্তৃতা দিচ্ছেন। সূত্রের খবর পেশোয়ারের প্রাদেশিক মন্ত্রীসভায় গৃহিত কিছু সিদ্ধান্তের বিষয়েই বক্তৃতা দিচ্ছিলেন তিনি। আর সেই বক্তৃতার নীচেই মজার মজার কমেন্ট করে বিষয়টিকে হাসির খোরাকে পরিণত করেছে নেটিজেনরা। আর বিষয়টা যে খুব অস্বাভাবিক তাও নয়। 

অসমে এনআরসি আতঙ্ক, মহিলাকে পাঠানো হল ডিটেনশন ক্যাম্পে

এমন একটা আলোচনা সভায় বিশিষ্ট নেতা-মন্ত্রীদের যদি ক্যাট ফিল্টারে দেখা গেলে বিষয়টা যে হাস্যকর হবেই একথা বলাই বাহুল্য। বিষয়টি প্রথম নজরে পরে এক সাংবাদিকের। তিনি বিষয়টি শেয়ার করার পরই ভাইরাল হয়ে যায় তাঁর পোস্ট। প্রসঙ্গত এসসিও সামিটে কূটনৈতিক প্রোটোকল ভাঙার জন্য বিতর্কে জড়িয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আর এই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবার বিতর্কে পাক সরকার। তবে পাক মন্ত্রকের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে কোননও মন্তব্যই করা হয়নি।