করোনাভাইরাসের কালো ছায়া পাকিস্তানে। আরও দুই পাক নাগরিকের শরীরে মিলল করোনার জীবানু।  পাকিস্তানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল চার। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে পাকিস্তানের সরকার। আগামী সাত দিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে আফগানিস্তান সীমান্ত। ইতিমধ্যেই ইরানের সঙ্গে সড়ক ও রেল যোগাযোগ ছিন্ন করেছে পাকিস্তান। ইরানগামী সমস্ত বিমান বাতিল করার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃ বাড়িতে পুলিশের তল্লাশি, বেসমেন্ট খুলতেই মিলল কুমির

সোমবার থেকে পাক-আফগান সীমান্ত বন্ধ। জানিয়েছে পাক প্রশাসন। বালুচিস্তানের চামন সীমান্ত আগামী সাত দিনের জন্য বন্ধ থাকবে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছে পাক প্রশাসন।  সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া জন্য সিন্ধের সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। করোনায় সংক্রমণের প্রথম খবর পাওয়া গিয়েছিল করাচি থেকে। আক্রান্ত ব্যক্তি দিন কয়েক আগে ইরান থেকে ফিরেছিলেন। করোনায় আক্রান্ত অপর ব্যক্তিও ইরান থেকে ফিরেছিলেন।  তাই ইরান সংলগ্ন বালুচিস্তান সীমান্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারণ ইতিমধ্যেই ইরানে ভয়াবহ আকার নিয়েছে করোনা ভাইরাস। আক্রান্ত হয়েছে বহু মানুষ। তাই এই সতর্কতা বলেও জানিয়েছে পাক প্রশাসন। 

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তানে বন্ধের মুখে গুগল-ফেসবুক-টুইটরার, এআইসি-র কড়া হুমকি ইমরান-কে

ইরান থেকে পাকিস্তানে ফিরেছে  আট হাজার তীর্থযাত্রী। যাঁদের খোঁজ শুরু হয়েছে। তাঁদের চিহ্নিত করে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। টাফটান সীমান্তে থেকে দুশো তীর্থযাত্রীকে ইতিমধ্যে চিহ্নিত করে আলাদা করা হয়েছে। অবিলম্বে তাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা হবে। এখনও তেরহানে রয়েছেন অনেক পাক নাগরিক। যাদের নিরাপদে দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়েও চিন্তাভাবনা করছে পাক সরকার। চীনের বাইরে করোনাভাইরাস সবথেকে বেশি প্রভাব ফেলেছে ইরানে। তাই সতর্কতা অবলম্ব করছে পাক প্রশাসন।