করোনা পরিস্থিতি সামলাতে রীতিমত হিশমিশ খাচ্ছে ভারতের প্রতিবেশী পাকিস্তান। ইতিমধ্যে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা লাখের গণ্ডি পেরিয়ে গিয়েছে। ইমরান প্রশাসনের স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়ে বারবার উঠছে অভিযোগ। আর এই আবহেই উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের প্রশংসায় মাতল পাক মিডিয়া।

কারণ, অকারণে বরাবরই পাক মিডিয়াকে দেখা গেছে ভারত বিরোধীতা করতে। কিন্তু সেই পাক মিডিয়াই এবার একেবারে চরিত্র বদল করে ফেলল। যেভাবে উত্তরপ্রদেশে যোগী আদিত্যনাথের সরকার করোনা মোকাবিলা করছে তার ভূয়সী প্রশংসা করলেন পাকিস্তানের বিখ্যাত দৈনিক দ্য ডনের সম্পাদক। 

বিশেষ সম্প্রদায়ের মানুষের চিকিৎসা নয় , স্বাস্থ্যকর্মীদের হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট ফাঁস হল রাজস্থানে

দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় ফের নতুন রেকর্ড দেশের, চিনকে একাই টপকে গেল মহারাষ্ট্র

মাত্র ৩ মাসেই মারণ ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে জিত, এবার করোনা মুক্ত রাষ্ট্র হল নিউজিল্যান্ড

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ১০ গোল দিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ। ট্যুইট করে এমন দাবিই করলেন দ্য ডনের রেসিডেন্ট এডিটর ফাওয়াদ হুসেন। 

পাকিস্তান সরকার যেভাবে করোনা মোকাবিলায় নাকনিচোপানি খাচ্ছে তা নিয়ে সম্প্রতি একটি নিবন্ধ লিখেছেন ডন-এ ইসলামাবাদ সংস্করণের সম্পাদক ফাওয়াদ হুসেন। রবিবার একটি টুইট করে উত্তর প্রদেশের মতো রাজ্যে যেভাবে কঠোরতার সঙ্গে লকডাউন মেনে চলা হয়েছে তার প্রশংসা করেছেন ফাদ। তাঁর দাবি, উত্তরপ্রদেশের যে জনসংখ্যা, প্রায় সেই জনসংখ্যাই রয়েছে পাকিস্তানে। তার পরেও করোনা মোকাবিলায় বেসামাল ইমরান খান সরকার।

ভারত-পাকিস্তান দুই দেশেই হু হু করে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। পাকিস্তানের অবস্থা ক্রমেই শোচনীয় হচ্ছে। লকডাউন করলে আর্থিক ক্ষতি হবে, তাই সাত তাড়াতাড়ি লকডাউন তুলে দিয়েছিল ইমরান সরকার। আর তার ফলই এখন ভুগতে হচ্ছে দেশটিকে। পাকিস্তান সরকার যেভাবে করোনা মোকাবিলায় নাকনিচোপানি খাচ্ছে তা নিয়ে সম্প্রতি একটি নিবন্ধ লিখেছেন ডনের  ইসলামাবাদ সংস্করণের সম্পাদক ফাওয়াদ হুসেন। আর তাতেই উত্তর প্রদেশের মতো রাজ্যে যেভাবে কঠোরতার সঙ্গে লকডাউন মেনে চলা হয়েছে তার প্রশংসা করেছেন ফাওয়াদ। তাঁর দাবি, উত্তরপ্রদেশের যে জনসংখ্যা, প্রায় সেই জনসংখ্যাই রয়েছে পাকিস্তানে। তার পরেও করোনা মোকাবিলা করতে ব্যর্থ ইমরান খানের সরকার।

একটি গ্রাফও ট্যুইট করেন ফাওয়াদ। সেখানে করোনায় পাকিস্তানে মৃত্যু ও উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু সংখ্যার তুলনা করেন। পাকিস্তানের জনসংখ্যা ২০.৮ কোটি। অন্যদিকে উত্তরপ্রদেশের জনসংখ্যা ২২.৫ কোটি। তার পরেও ইমরানের দেশে করোনায় মৃত্যু উত্তরপ্রদেশের তুনলায় সাতগুণ।

 

 

পাক সাংবাদিকের সাফ কথা, করোনা মোকাবিলায় উত্তরপ্রদেশ ঠিক পদক্ষেপ নিয়েছে। যোগী রাজ্যের তুলনায় পাকিস্তানে জনঘনত্ব কম, জিডিপির হার বেশি। তার পরেও মৃত্যু ঠাকাতে পারেনি ইসলামাবাদ প্রশাসন। এমনকি ভারতে সবচেয়ে বেশই করোনা আক্রান্ত রাজ্য মহারাষ্ট্রের পরিস্থিতিও পাকিস্তানের তুলনায় ভাল বলে দাবি করেন তিনি।