অবাককাণ্ড পাকিস্তানে। সেখানে একটি মিছিলে দেখা গেল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুধু মোদী একা নন, মিছিলে ছিল আমেরিকার নবনির্বাচিত রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন, জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেলসহ বিশ্বের প্রধানসারির রাষ্ট্রপ্রধানদের ছবি ও পোস্টার। সংবাদ সংস্থা এনএনআই জানিয়েছে ১৭ জানুয়ারি পাকিস্তানের সিন্ধের সান শহরে স্বাধীনতাপন্থী সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও অন্যান্য রাষ্ট্রনেতাদের প্ল্যাকার্ড নিয়ে মিছিল করা হয়েছিল। এএনআই জানিয়েছে, সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা সিন্ধুদেশের দাবিতে বিশ্ব নেতাদের হস্তক্ষেপ দাবি করেছিলেন। 

একটি সূত্র জানাচ্ছে আধুনিক সিন্ধি জাতীয়তাবাদের অন্যতম প্রধান জিএম সৈয়দের ১১৭ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্য়ে এই মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছিল। মিছিলে অংশগ্রহণকারী বিক্ষোভকারীরা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বিশ্বের বেশ কয়েকজন নেতার ছবি ও পোস্টার নিয়ে অংশ গ্রহণ করেন। বিক্ষোভকারীদের আর্জি ছিল সিন্দুদেশের স্বাধীনতার তাঁরা যেন হস্তক্ষেপ করেন। পাকিস্তানের সিন্দ প্রদেশের সান শহরে অনুষ্ঠিত হয় এই মেগা ব়্যালিটি। 

সৎছেলের কন্যা সন্তানের জন্ম দিলেন মা, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল রাশিয়ান ব্লগারের প্রেম কাহিনি .

করোনা টিকা নেওয়ার ২৪ ঘণ্টার পরে মৃত্যু, ভ্যাকসিন থেকে মৃত্যু নয় বলে দাবি সরকারের ...

একটি সূত্র জানাচ্ছে বিক্ষোভকারীদের দাবি ছিল সিন্ধু সভ্যতা ও বৈদিক ধর্মের আবাস সিন্ধ এলাকা। যা ব্রিটিশরা দখল করেছিল। কিন্তু দেশভাগের সময় ব্রিটিশরা ইসলামিক রাষ্ট্র পাকিস্তানের হাতে তা দিয়ে দিয়েছিল। সেখানে বেশ কয়েকটি জাতীয়তাবাদী দল রয়েছে। যারা সিন্ধের স্বাধীনতার দাবিতে দীর্ঘ দিন ধরেই আওয়াজ তুলে আসছে। তারা পাকিস্তানকে দখলদার চিহ্নিত করে আন্তর্জাতিক মঞ্চে বিষয়টি উত্থাপন করতে চায়। এই এলাকার বাসিন্দাদের মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ তুলেছে তারা। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সময়ও এই এলাকার বাসিন্দারা স্বাধীনতার দাবি জানিয়েছিল। কিন্তু তা বাস্তবায়িত হয়নি। চলতি বছর বাংলাদেশ স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকী পালন করছে।