পুজোটা মাটি মানে পুজো বরবাদ নয়। কালীঘাট নেপাল ভট্টাচার্য স্ট্রিট ক্লাবের এই বছরের থিম হল এবার পুজোটাই মাটি। এর মানে পুরও পুজো প্যান্ডেলের সমস্ত আয়োজনই হবে মাটি দিয়ে। কুমোরটুলি বা কুমোর পাড়ায় যেভাবে ঠাকুর তৈরি হয় সেই চিন্তা ভাবনাই এখানে তুলে ধরা হচ্ছে এই প্যান্ডেলে। দুর্গা পুজোয় গঙ্গায় মাটি নেওয়া থেকে শুরু করে ঠাকুরের ভাসান পর্যন্ত শুধুই তো মাটি এবং এই ভাবনাই আরও স্পষ্ট করে দেখানো হচ্ছে কালীঘাট নেপাল ভট্টাচার্য স্ট্রিট ক্লাবের আঙিনায়।

আরও পড়ুন- কংক্রিটের জঙ্গল ছেড়ে ঘুরে আসুন এবার পর্ণছায়ার তলে

এই প্যান্ডেলের শিল্পী কিন্তু বাইরের কেউ নয়। বরং ক্লাব মেম্বাররাই হলেন শিল্পী। সকলের ভাবনায় এবং এই ক্লাবের সঙ্গে  ২০০৫ সাল থেকে জড়িত বুরুলের ৮ জন ভাই এর সহযোগিতায় সেজে উঠছে মন্ডপ। ক্লাবের পুজো সম্পাদক অভিজিৎ বোসের কথানুযায়ী তারা এবারের পুজোর থিমটা নিবেদন করছেন শিল্পীদের প্রতি। শিল্পীরা যে কি অসামান্য ভাবে মা দুর্গাকে সাজিয়ে তোলেন, তাদেরই সন্মান জানাতে ওনাদের এই ছোট্ট প্রচেষ্টা।

আরও পড়ুন- দুর্গোৎসবে পরিবেশকে প্লাস্টিকবিহীন করার অঙ্গীকার নিয়েছে ডায়মন্ড পার্ক সর্বজনীন

পুজোর উদ্বোধন করছেন ৫০ জন প্রতিবন্ধী শিশু এবং তাদের নতুন জামাকাপড় দিয়ে বরণ করে এবারের যাত্রা শুরু হবে নেপাল ভট্টাচার্য স্ট্রিট ক্লাবের। এছাড়াও পুজোর অন্যান্য দিনেও বেশ কিছু সামাজিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সুতরাং দুর্গা পুজোয় মাটির এঁদো গন্ধ পেতে রাসবিহারী আ্যভিনিউ থেকে কেওরাতলা শ্মশান অবধি এসে চেতলাপুরে ওঠার আগে কালীঘাট মন্দিরের দিকে একটু এগিয়ে চলে আসুন নেপাল ভট্টাচার্য স্ট্রিট ক্লাবে।