আজ দুর্গাপুরের একটি বেসরকারী ইংরেজী মাধ্যম স্কুলের আমন্ত্রনে এসেছিলেন বাংলাদেশের প্রতিশ্রুতিবান ক্রিকেটার মেহদি হাসান । একজন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারকে হাতের কাছে পেয়ে উল্লাসে ফেটে পড়ে এই স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা । স্কুল কতৃপক্ষের তরফে সংবর্ধনা দেওয়া হয় অতিথি ক্রিকেটারকে । তাঁকে গোটা স্কুল ঘুরিয়ে দেখান প্রধান শিক্ষিকা অনিন্দিতা হোম চৌধুরী সহ স্কুল কতৃপক্ষ । ছাত্রছাত্রীদের ভালবাসায় আপ্লুত মিরাজ জানালেন যে দুর্গাপুরে না এলে তিনি জানতেই পারতেননা যে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা এত জনপ্রিয় এখানে । স্কুল পরিদর্শন করা কালীন মাঝে মধ্যেই খুদে পড়ুয়াদের দ্বারা ঘেরাও হয়ে পড়ছিলেন । সবারই আবদার , সেলফি আর অটোগ্রাফ । নিরাশ করেননি কাউকেই , অকাতরে বিলিয়েছেন অটোগ্রাফ , ছবিও তুলেছেন সবার সঙ্গেই । প্রায় ঘন্টাখানেক থাকার পর তিনি কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা হন । তবে ততক্ষনে ফের আসার প্রতিশ্রুতি আদায় করে নিয়েছেন স্কুল কতৃপক্ষ । ২০২০তে যে তিনি আবারও এসে খুদে ভক্তদের সাথে সময় কাটাবেন , জানিয়ে গেলেন মিরাজ । বাংলাদেশী ক্রিকেটারের প্রতি উজাড় করা এই ভালবাসা আরও একবার প্রমান করল এ দেশের মানুষের ক্রিকেট প্যাশন।

আরও পড়ুন, সচিনের পরামর্শ বোর্ড সভাপতি সৌরভকে, বদল হোক দলীপ ট্রফির ফরম্যাট

মেহদির পাশাপাশি গোটা বাংলাদেশ দলই এখন রয়েছে কলকাতায়। টেস্ট ম্যাচ শেষ হয়ে গেলেও, কিছুদিন কলকাতায় কাটিয়ে নিজেদের ফের একবার তরতাজা করে নিয়েই দেশে ফিরবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা। মেহদির দুর্গাপুর সফরের পাশাপাশি মঙ্গলবার সকালে মন্দিরে পুজো দিলেন বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার লিটন দাসও। ভারতের বিরুদ্ধে ব্যাটিং করার সময় চোট পেয়ে দল থেকে দ্বিতীয় টেস্টের মাঝেই মাথায় চোট পেয়ে দল থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন লিটন। তবে এখন তিনি অনেকটাই সুস্থ। আর সুস্থ হওয়ার পর কালিঘাটে পুজো দিলেন তিনি। মায়ের কাছে পুজো দিয়ে আগামী দিনের জন্য নিজের জন্য ও দলের জন্য শুভকামনা করে গেলেন তিনি। সম্ভবত ২৭ নভেম্বর কলকাতা থেকে বাংলাদেশ ফির যাবে বাংলাদেশ দল।

আরও পড়ুন, আইপিএল পর্যন্ত ধৈর্য ধরুন, ধোনি জল্পনায় জল ঢেলে বললেন রবি শাস্ত্রী


 বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম গুরুত্বপুর্ন সদস্য অলরাউন্ডার মেহদি হাসান মিরাজ। আর সেই মেহদি দুর্গাপুর সফরে গিয়ে মুখোমুখি হয়েছিলেন সংবাদ মাধ্যমের। শাকিব আল হাসানের দলে না থাকাটা বাংলাদেশ দলের জন্য একটা নেগেটিভ পয়েন্ট বলে জানান তিনি। সেখানে তিনি শাকিবকে নিয়ে বলেন, 'সাকিব আল হাসান  অন্যতম সেরা এই বাংলাদেশী অলরাউন্ডার ক্রিকেট বুকির সাথে কথা বলার অপরাধে নির্বাসিত । তবে শাকিব ভাইয় ভুল করলেও, সেটা তাঁর নিজের দোষ নয়। তাঁকে আমাদের দল খুব মিস করেছে। একই সঙ্গে এমন এক ঘটনার জেরে বেশ আতঙ্কিত বাকি বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। তিনি জানালেন, 'ক্রিকেটারদের সদা সতর্ক থাকা উচিৎ । তাই আমরা বেশি সতর্ক হয়ে পড়েছি। তবে শাকিব ভাই খুব তাড়াতাড়ি ফিরবে। আর তিনি নিজের দুরন্ত ফর্মেই ফিরবেন।'  সম্প্রতি ইডেনে হয়ে যাওয়া গোলাপী বলের টেস্ট নিয়েও প্রতিক্রিয়া দেন মেহদি। তিনি বলেন, 'এই প্রথম আমরা গোলাপি বলে খেলেছি। এটা দারুন অভিজ্ঞতা । ভারত খুব ভাল দল। অনেক শেখার আছে ভারতের কাছে। আগামী দিনে আমরাও ফের ভালো খেলবো।'