চিন ছাড়িয়ে বিশ্বের ৭০টি দেশে দাপট দেখাচ্ছে করোনা ভাইরাস। খেলার জগতেও গ্রাস করছে করোনা আতঙ্ক। বাদ যাচ্ছে না ক্রিকেটও। করোনা ভয়ে আইপিএল-টা-ই না যেন বাতিল হয়ে যায় সে প্রার্থনা করছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। যদিও, বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় আইপিএল বাতিলের কোনও সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন। সঠিক সময়েই টুর্নামেন্ট হবে বলে জানিয়েছেন আইপিএল গর্ভনিং কাউন্সিলের প্রধান ব্রজেশ প্যাটেল। 

আরও পড়ুনঃকরোনাভাইরাসে কি এবার বাতিলের মুখে আইপিএল, বিসিসিআই জানাল তাদের অবস্থান

 শুধু আইপিএল নয়, করোনাা আতঙ্ক গ্রাস করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকেও। ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে ক্রিকেটারদের সঙ্গে হাত না মেলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট টিম। এই কথা স্বয়ং জানিয়েছেন ইংল্যান্ড দলের অধিনায়ক জো রুট। কারণ করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চাইছেন না ব্রিটিশ ক্রিকেটাররা। শরীরের সংস্পর্শে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা থাকে। বিষয়টি সামনে আসার পর থেকেই সৌজন্য বিনিময়ের ক্ষেত্রে হাত মেলানোর পরিবর্তে ভারতীয় কায়দায় নমস্কার করার কথাও বলছেন অনেকে। কিন্তু এক্ষেত্রে হাত মেলানোর পাল্টা পথও বাতলে দিয়েছেন ব্রিটিশ লায়ন্সরা। হ্যান্ডশেকের বদলে ক্রিকেটাররা 'ফিস্ট বাম্প' বা মুষ্ঠি ঠেকাবেন একে অপরের হাতে। 

আরও পড়ুনঃআই লিগ জিততে বাগানের দরকার ৬ পয়েন্ট, বেইতিয়াদের পরবর্তী লক্ষ্য মিশন চেন্নাই

আরও পড়ুনঃনির্বাচন কমিটিতে বদল, এমএসকে প্রসাদের জায়গায় আসতে চলেছেন সুনীল জোশী

ইংল্যান্ড ক্রিকেটারদের এই ভীতির পেছনে কারণও রয়েছে যথার্থ। সম্প্রীতি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়ে বেশ কয়েক জন ক্রিকেটার গ্যাস্ট্রো সমস্যা ও জ্বরে আক্রান্ত হয়েছিলেন। ১০ জন ক্রিকেটারের পাশাপাশি অসুস্থ হয়ে পড়েন ৪ জন সাপোর্ট স্টাফও। এত জনের রহস্যজনকভাবে অসুস্থ হওয়ার কারণে সিরিজে দল বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও সমস্যায় পড়তে হয়েছিল ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলকে। তাই শ্রীলঙ্কা সফরে কোনও ঝুঁকি না নিয়ে হ্যান্ডশেক থেকে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইংল্যান্ড। এছড়াও অন্যান্য সবরকম সাবধানতার অবলম্বনও নিতে চলেছে রুট-স্টোকস-জেশন রয়-ব্রেস্ট্রোরা।