'সব কিছু ঠিক আছে', চোট নিয়ে উদ্বেগের মাঝে সমর্থকদের আশ্বস্ত করলেন দি পল

| Dec 08 2022, 09:10 PM IST

Rodrigo De Paul

সংক্ষিপ্ত

সমর্থকদের আশ্বস্ত করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলেন দি পল। রদ্রিগো দি পলের চোটের আশঙ্কা ফু দিয়ে উড়িয়ে দি পল বললেন 'অল ইজ ওয়েল'।

অ্যাঙ্খেল দি মারিয়া ও মার্তিনেজের পর এবার চোটের আশঙ্কা আর্জেন্টিনার আর এক গুরুত্ত্বপূর্ণ খেলোয়াড় রদ্রিগো দি পলের। অজিদের হারানোর এবার ডাচদের বিরুদ্ধে লড়াই আরও কঠিন হতে চলেছে। তার উপর একের পর এক ফুটবলারের চোটের আশঙ্কায় আরও কঠিন হয়েছে পরিস্থিতি। তবে এরই মধ্যে দল ও সমর্থকদের আশ্বস্ত করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলেন দি পল। রদ্রিগো দি পলের চোটের আশঙ্কা ফু দিয়ে উড়িয়ে দি পল বললেন 'অল ইজ ওয়েল'।

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অনুশীলনে নেমেও উরুর পেশিতে চোট লাগার কারণে খেলতে পারেননি দি পল। চোটের কারণেই এই ম্যাচে প্রথম থেকে ছিলেন না লাউতারো মার্তিনেসও। তাঁর এজেন্ট আলেসান্দ্রো কামাচো জানিয়েছেন,'নিয়মিত ব্যথার ইঞ্জেকশন নিতে হচ্ছে মার্তিনেসকে। ওঁর গোড়ালিতে প্রচণ্ড ব্যথা রয়েছে। ব্যথা কমানোর আপ্রাণ চেষ্টা করা হচ্ছে।' এরই মধ্যে আবার রদ্রিগো দি পলের চোটের আশঙ্কায় যথেষ্ট চিন্তায় পড়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা শিবির। কিন্তু সমর্থকদের আশ্বস্ত করে দি পল নিজেই জানালেন সব ঠিক আছে। যদিও অনুশীলনে দেখা যায়নি রদ্রিগো দি পলকে। আর্জেন্টিনীয় সংবাদপত্র ক্ল্যারিন দাবি করছে সাবধানতা অবলম্বন করতেই প্রাকটিসে দেখা যায়নি দি পলকে। যাতে নতুন করে চোট না বাড়ে। এবার এই দাবিকে আরও জোরালো করে দি পল নিজের ইনস্টাগ্রামে লিখলেন,'সব কিছু ঠিক আছে। নতুন একটি ম্যাচের জন্য আমরা চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিচ্ছি। দল হিসাবে আমরা একজোট।'

Subscribe to get breaking news alerts

 

 

এর আগে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালের আগে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিলেন আর্জেন্টিনার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় দি মারিয়া। সাংবাদিক বৈঠকে আর্জেন্টিনা কোচ স্কালোনি জানিয়েছেন ‘মাংসপেশি ও তন্তুতে চোট রয়েছে অ্যাঙ্খেলের। এছাড়া শরীরের বিভিন্ন গাঁটেও ব্যাথা রয়েছে।' চিন্তিত মুখে স্কালোনি জানান,'আমি নিজেও বুঝতে পারছি না ও আদৌ খেলতে পারবে কি না। অনুশীলনে অ্যাঙ্খলকে দেখার পরই বিষয়টা বুঝতে পারব। আর্জেন্টিনা কোচের মতে কম সময়ের ব্যবধানে ম্যাচ খেলতে হওয়ার কারণেই আঘাত ও চোট বাড়ছে ফুটবলারদের। তিনি আগেই এই বিষয় ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন। স্কালোনি বলেছেন, 'বুধবার আমাদের ম্যাচ ছিল রাত ১০টা থেকে (কাতারের সময় অনুযায়ী)। আমাদের দলের সবাই ঘুমোত যাই ভোর ৪টের সময়। তারপর ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আবার ম্যাচ খেলতে হলে ফুটবলারদের শরীরের উপর দিয়ে ধকল যাবেই। আমরা গ্রুপের সেরা দল হিসেবে নক-আউটের যোগ্যতা অর্জন করেছি। নক-আউটে আমাদের প্রতিপক্ষ যারা, সেই অস্ট্রেলিয়া ওদের গ্রুপে দ্বিতীয় হয়ে নক-আউটের যোগ্যতা অর্জন করেছে। ওদের ম্যাচ ছিল বুধবার সন্ধে ৬টার সময়। কিন্তু আমাদের ম্যাচ তার ৪ ঘণ্টা পরে দেওয়া হয়। এতে আমাদের সমস্যা হবে। বিশ্বকাপ কতটা কঠিন, সেটা আমরা জানি। এটা ফুটবল খেলা। এই খেলা অত সহজ নয়।'