আরও গভীর সঙ্কজনক অবস্থায় ভারতীয় হকি লেজেন্ড বলবীর সিং সিনিয়র। আরও দুটি কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে হয়েছে তার। বৃহস্পতিবার তার নাতি কবীর জানিয়েছেন,'গত কাল থেকে নানদির আরও দুটি কার্ডিয়াক অ্যাটাক হয়েছে। তারপর থেকেই নানাজির অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক। আপাতত ভেন্টিলেশনে রয়েছেন তিনি। সর্বক্ষণ চিকিৎসকরা তার  অবস্থার পর্যবেক্ষণ করছেন। পরিবারকেও তার স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য দিচ্ছে হাসাপাতাল কর্তৃপক্ষ।'

আরও পড়ুনঃআইলিগে কমছে বিদেশি প্লেয়ারের সংখ্যা, ক্লাবগুলির সম্মতিতে সিদ্ধান্ত ফেডারেশনের

জ্বর, সর্দি, কাশির উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ভারতের কিংবদন্তি হকি তারকা বলবির সিং। গত বৃহস্পতিবার থেকেই জ্বর ছিল তাঁর। পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় পরিবারের তরফ থেকে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  মোহালির এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় তাকে। করোনার উপসর্গ থাকায চিকিৎসকরা কোনও ঝুঁকি না নিয়ে বলবীর সিং এর করোনা টেস্ট করান। সেই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।  এরপর সুস্থ হওয়ার পথেই এগোচ্ছিলেন ৯৬ বছর বয়সী এই প্রাক্তন হকি তারকা।  কিন্তু আচমকাই মঙ্গলবার সকালের দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে ভেন্টিলেশনে রাখার ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু পর আরও দুটি কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হওয়ায় চিন্তা কিছুটা বেড়েছে চিকিৎসকদের। উদ্বিগ্ন পরিবার পরিজনও।

আরও পড়ুনঃফিরছে বুন্দেসলিগা,জেনে নিন ২০১৯-২০ মরসুমের লিগের সেরা ১০ গোলরক্ষক কারা

আরও পড়ুনঃঅর্জুন পুরষ্কারের জন্য বিসিসিআইয়ের সম্ভাব্য তালিকায় বুমরা ও ধওয়ানের নাম

১৯২৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন বলবীর সিং। ছোট বেলা থেকেই হকিই ছিল তার ধ্যান,জ্ঞান। খেলোয়ার জীবনে অলিম্পিকে ভারতের হয়ে তিনটি গোল্ড মেডেল জিতে অনন্য নজির গড়েছেন তিনি। পরপর তিনটি ১৯৪৮ লন্ডন অলিম্পিক, ১৯৫২ হেলসেনকি অলিম্পিক, ১৯৫৬ মেলবোর্ন অলিম্পিকে সোনা পান বলবীর সিং।  এরমধ্যে ১৯৫২ সালে ভারতীয় দলের সহ অধিনায়ক ও ১৯৫৬ সালে ভারতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন তিনি। ১৯৫৮ সালে টোকিও এশিয়ান গেমসে ভারতের হয়ে রূপো জেতেন বলবীর সিং। কোচ হিসেবেও ১৯৭৫ সালে ভারতকে হকি বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন করেছেন তিনি। ১৯৭১ সালে তার কোচিংয়ে ব্রোঞ্জ পদক জেতে ভারতীয় দল। এহেন তারকা বর্তমানে পাঞ্জা লড়ছেন মৃত্যুর সঙ্গে। প্রাক্তন হকি লেজেন্ডের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছে ভারতীয় ক্রীড়া মহল।