দীর্ঘ দিন ধরে টেনিস কোর্টের বাইরে চিলেন সানিয়া মির্জা। প্রথমে ব্যক্তিগত কারণ ও তারপর করোনা ভাইরাস মহামারী, এই দুই কারণেই টেনিস থেকে দূরে ছিলেন ভারতীয় টেনিস সুন্দরী। দীর্ঘ সময় পর কাতার টোটাল ওপেন থেকে ফের টেনিসে ফেরার কথা জানিয়েছিলেন সানিয়া মির্জা। কিন্তু পুরোনো ছন্দে তাকে পাওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে সংশয় ছিল সানিয়া ভক্তদের। কিন্তু টেনিস কোর্টে স্বমহিমায় ফিরলেন টেনিস তারকা। জয় দিয়ে শুরু করলেন অভিযান।

কাতার টোটাল ওপেনে ডাবলসে জয় পেলেন সানিয়া মির্জা। মহিলাদের ডাবলসে তাঁর জুটি ছিলেন স্লোভেনিয়ার আন্দ্রেয়া ক্লেপাচ।  প্রতিপক্ষ ছিলেন ইউক্রেনের নাদিয়া কিচেনক ও লিউদমিলা কিচেনক। প্রথম রাউন্ডার ম্য়াচে  ৬-৪, ৬-৭ (৫-৭), ১০-৫ ব্যবধানে ম্যাচ জেতে ইন্দো স্লোভানিয়ান জুটি। শুরুতে ০-৩ ব্যবধানে পিছিয়ে গিয়েও দারুণ ভাবে ফিরে আসেন সানিয়ারা। শেষে ৬-৪ ব্যবধানে প্রথম সেট জেতেন। দ্বিতীয় সেটে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই  হয়। গড়ায় টাই ব্রেকারে। টাই ব্রেকারে ৬-৭ (৫-৭) ব্যবধানে জিতে নেন সানিয়ারা। তৃতীয় রাউন্ডে ১০-৫ ব্যবধানে ম্য়াচ জিতে নেন সানিয়া-ক্লোপাচ জুটি।

এই ম্যাচ জয়ের ফলে সরাসরি কাতার টোটাল ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে পৌছে গেলেন ইন্দো-স্লোভানিয়ান জুটি। ২০২০ সালে হোবার্ট ওপেনে নাদিয়ার সঙ্গেই জুটি বেঁধে খেলেছিলেন সানিয়া। এবার কাতারে জয় দিয়ে শুরু করে আত্মবিশ্বাস অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে এই জুটি। প্রতিযোগিতায় আরও এগিয়ে যাওয়াই লক্ষ্য তাদের। আর জয় দিয়ে শুরু করায় খুশি সানিয়া ভক্তরাও।