অজস্র সুযোগ নষ্ট ও প্রতিপক্ষের গোলকিপারের বদান্যতায় এফ এ কাপের শেষ ষোলোর ম্যাচে কোনও ক্রমে জয় পেল ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। শেফিল্ড ওয়েডনেস ডে এফসি-কে ১-০ গোলে হারাল পেপ গুয়ার্দিওয়াালার দল। ম্যাচে ম্যান সিটির হয়ে একমাত্র গোলটি করেন সার্জিও আগুয়ারো। এই জয়ের ফলে  প্রতিযোগিতার শেষ আটেও নিজেদের জায়গা পাকা করে ফেলল গুয়ার্দিওয়ালা ব্রিগেড।

আরও পড়ুনঃবৃষ্টির কারণে বাতিল খেলা, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতীয় মহিলা দল

দুর্বল শেফিল্ড ওয়েডনেস ডে-র বিরুদ্ধেও পূর্ণ শক্তির দল নামান পেপ। ম্যাচের শুরু থেকেই একের পর এক আক্রমণ আছড়ে পড়ে প্রতিপক্ষের বক্সে। কিন্তু সুযোগ তৈরি হলেও তা গোলে পরিণত করতে ব্যর্থ হন সিটির অ্যাটাকিং লাইন।  বেশ কয়েক বার গোলের একে বারে সামনে গিয়ে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি জেসাস, মেহরাজ, হার্নান্ডেজ, সিলভারা। কয়েকটি শট ও হেড প্রতিহত হয় গোল পোস্টে লেগে। দলের তারকা প্লেয়ারদের অজস্র সুযোগ মিস দেখে মাঠের বাইরে থেকে একাধিকবাার বিরক্তি প্রকাশ করেন পেপ গুয়ার্দিওয়ালা।  ম্যাচের প্রথমার্ধের খেলাও শেষ হয় হয় গোলশূণ্যভাবে। 

আরও পড়ুনঃরঞ্জি ফাইনালে বাংলার প্রতিপক্ষ সৌরাষ্ট্র, গতবারের চ্যাম্পিয়নদের জন্য জয় আনলেন উনাদকট

আরও পড়ুনঃকরোনা ভাইরাসের জের, বাতিল হলো ভারতের তাজাকিস্তান সফর

দ্বিতীয়ার্ধেও একইভাবে আক্রমণাত্বকভাবে খেলা শুরু করে ম্যান সিটি। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে আগুয়ারোর দুর্বল শট বিপক্ষের গোলরক্ষেকর হাতে লেগে জালে জড়িয়ে যায়। আর্জেন্টাইন তারকার করা একমাত্র গোলে লিড পায় সিটি। এর পরেও গোটা ম্যাচ জুড়ে চিত্রটা একই ছিল। মাঝমাঠ থেকে সংঘবদ্ধভাবে আক্রমণ তুলে আনলেও, গোলের সামনে গিয়ে তা দানা বাধছিলনা না। ফলে ক্রমাগত মিস। অপরদিকে দু-একবার গোলের সুযোগ তৈরি করেছিল শেফিল্ড ওয়েডনেসডে এফসিও। কিন্তু মেন্ডি, ওটামেন্ডি, স্টোনস, ক্যানসেলো  সমৃদ্ধ সিটির ডিফেন্স লাইন ভাঙতে সমর্থ হয়নি শেফিল্ডের অ্যাটাকিং লাইন। দুর্বল দলের বিরুদ্ধে কষ্টসাধ্য জয় পেলেও, দল পরবর্তী রাউন্ডে পৌছোনোয় কিছুটা স্বস্তিতে সিটি টিম ম্যানেজমেন্ট। আগামি ম্যাচে দল তার পুরনো ছন্দেই ফিরবে বলে আশাবাদী সিটির হেডস্যার পেপ গুয়ার্দিওয়ালা।