ছয় বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন তিনি। শুধু ভারত নয়, গোটা বিশ্বের মহিলা বক্সারদের কাছে এক আদর্শের নাম মেরি কম। কিন্তু সেই মেরি কমকেও দিতে হবে পরীক্ষা। অলিম্পিকে যাওয়ার পরীক্ষা নয়, অলিম্পিক যোগ্যতা অর্জন পর্বের খেলায় অংশ নিতেও ছয় বারের বিশ্ব চ্যায়নকে দিতে হচ্ছে পরীক্ষা। ভারতীয় বক্সিং ফেডারেশন জানিয়েছে এই কথা। তবে শুধু মেরিকে নয়, সব ভারতীয় বক্সারকেই অলিম্পিক যোগ্যতা অর্জন পর্বে যেতে হবে ট্রায়াল দিয়ে।  ভারতীয় বক্সিং ফেডারেশনের এই সিদ্ধান্তে বেশ ক্ষুব্ধ ভারতীয় ক্রীড়া মহল। 

আরও পড়ুন - বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার ৯ বছর বাদে অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন তেজস্বিনীর

কিন্তু এই সিদ্ধান্ত নেওয়া ছাড়া আর কোনও উপায় ছিল না ভারতীয় বক্সিং ফেডারেশেনর সামনে। কারণ এর আগে ফেডারেশন জানিয়েছিল, বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে কোনও ভারতীয় বক্সার যদি ফাইনালে খলতে পারেন তাহলে সেই বক্সার সরাসরি অলিম্পিক যোগ্যতা অর্জন পর্বে খেলবেন। কিন্তু মেরি সেটা পারেননি। তা সত্ত্বেও মেরিকে সরাসরি অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন পর্বে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ফেজারেশন। কিন্তু এই কথা জানার পরই কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রীর কাছে লম্বা চিঠি লিখেছিলেন নিখাত জারিন। তিনি ও মেরি দুজনই ৫১ কেজি বিভাগে। তাহলে কেন ট্রায়াল হবে না ? এটাই ছিল জারিনের প্রশ্ন। 

আরও পড়ুন - সচিন-কোহলিদের পেছনে ফেললেন শেফালি, ক্যারেবিয়ান দ্বীপে গড়লেন নতুন রেকর্ড

নিখাতের চিঠি নিয়ে কম জল ঘোলা হয়নি। যুক্তির দিক থেকে নিখাত ঠিক। তাই আর বিতর্ক বাড়াতে চাইছে না ফেডারেশন। ভারতীয় বক্সিং ফেডারেশেনর প্রধান অজয় সিং জানিয়েছেন মেরিকেও ট্রায়াল দিয়েই যেতে হবে অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন পর্বে। ডিসেম্বর মাসের ২৯ ও ৩০ তারিখ হবে এই ট্রায়াল পর্ব। মুখোমুখি হবেন নিখাত জারিন ও মেরি কম। আগামী বছর ফেব্রুয়ারি মাসে হবে অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন পর্বের খেলা। পুরুষ বস্কারদের ক্ষেত্রেও একই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেডারেশন। বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে পদক পাওয়া অমিত ফঙ্গল ও মণীশ কৌশিক ছাড়া সবাইকেই ট্রায়ালে পাস করেই যেতে হবে যোগ্যতা অর্জন পর্বে। 

আরও পড়ুন - হ্যাটট্রিকের রেকর্ডে এবার রোনাল্ডোর পাশে মেসি, লালিগায় বড় জয় বার্সার