করোনা ভাইরাস মহামারীর পৃথিবী বজুডে বন্ধ সমস্ত ধরনের স্পোর্টিং ইভেন্ট। ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে প্রায় গোটা পৃথিবী জুড়েই চলছে লকডাউন। ক্রিকেট, ফুটবল, হকি, টেনিস থেকে শুরু করে সমস্ত প্লেয়াররাই রয়েছেন গৃহবন্দি। এই সময় সামাজিক সচেতনতার বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি সরকারি তহবিলে নিজেদের সাধ্যমত অনুদানও দিয়েছেন ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা। অবসর সময় কাটাচ্ছেন পরিবারের সঙ্গে,কিংবা নিজের সখ পূরণ করে। কিন্তু তারপরও লকাউনে হাঁপিয়ে উঠেছেব ক্রীড়াবিদরা। মাঠে ফেরার অপেক্ষায় নমরিয়া হয়ে উঠেছেন সকলে। তেমনই অবস্থা ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জারা। সন্তানের জন্মের পর গত জানুয়ারি মাসেই তিনি ফিরেছিলেন পেশাদার টেনিসে।   কিন্তু তার পরই ভয়ঙ্কর ভাইরাসের আক্রমণে স্তব্ধ হয়ে গিয়েছে গোটা বিশ্ব। তার প্রভাব পড়েছে ভারতে। ভারতও গত ২৪ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে লকডাউন। প্রথম দফার ২১ দিনের লকডাউন শেষে তা বাড়িয়ে করা হয়েছে ৩ মে পর্যন্ত। 
আরও পড়ুনঃমোহনবাগানকে এখনই আইলিগ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণার দাবি রঞ্জিত বাজাজের, চিঠি ফেডারেশনকে

নিজের ট্য়ুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ছবি শেয়ার করেছেন সানিয়া মীর্জা। সেই ছবিতে দেখা যাচ্ছে সানিয়া একটি দেওয়ালে হেলান দিয়ে বসে রয়েছেন, হাতে রয়েছে টেনিস র‍্যাকেট এবং চারদিকে ছড়িয়ে রয়েছে অনেক বল। ছবি পোস্ট করে তিনি ক্যাপশনে লেখেন, ‘‘আবার টেনিস খেলার অপেক্ষায় রয়েছি।''সানিয়ার জন্য বিষয়টি একটু বেশিই কঠিন। তিনি এতটা মরিয়া ফিরতে তার কারণ তিনি সদ্যই কোর্টে ফিরেছিলেন দীর্ঘদিন পর।২০১৮-র অক্টোবরে তাঁর ছেলে ইজহানের জন্ম হয়। তার অনেক আগে থেকেই তিনি কোর্টের বাইরে। এই বছর জানুয়ারি মাসেই সানিয়া কোর্টে ফিরেছিলেন। ফিরেই সবাইকে চমকে দিয়ে মহিলাদের হোবার্ট আন্তর্জাতিক ডবলস টাইটেল জিতে নেন তিনি। এখানে তিনি জুটি বেঁধেছিলেন নাদিয়া কিচেনকের সঙ্গে। এটিই ছিল তাঁর কামব্যাক টুর্নামেন্ট। 

আরও পড়ুনঃঅনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত আইপিএল, সরকারি ঘোষণা বিসিসিআইয়ের, বাতিলও হতে পারে কোটিপতি লিগ

যদিও ঘরে থেকে একাধিকবার দেশবাসীর উদ্দেশ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় সামাজিক সচেতনতার বার্তা দিয়েছেন সানিয়া মীর্জা। এছাড়াও করোনা যুদ্ধে একটি দল হিসেবে কাজ করে ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকার সংগ্রহ করে অনুদান দিয়েছেন। যার মাধ্যমে লক্ষাধিক পরিবারকে সাহায্য করা হয়েছে। আগামী দিনেও এই প্রক্রিয়া জারি থাকবে বলে জানিয়েছেন টেনিস তারকা। তবে যাই হোক ক্রীড়া ব্যক্তিত্বদের কাছে খেলার মাঠচা হচ্ছে জীবন। সেখান থেকে বেশি দিন দূরে থাকলে হাঁপিয়ে ওঠা স্বাভাবিক। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির কথা ভেবে কষ্ট হলেও সকলকে ঘরে থাকারই বার্তা দিয়েছেন টেনিস সুন্দরী।
আরও পড়ুনঃভাঙা হাঁটু নিয়ে গোটা বিশ্বকাপ খেলেছিলেন মহম্মদ সামি, নিজেই ফাঁস করলেন সেই রহস্য