হোয়াটসঅ্যাপে আপনার ব্যক্তিগত তথ্যগুলি কি সুরক্ষিত? হ্যাকারদের কাছে রয়েছে বিস্ফোরক ডেটাবেস

| Nov 28 2022, 05:32 PM IST

whatsapp

সংক্ষিপ্ত

অভিনেতা সাইবারনিউজকে জানিয়েছেন যে, হ্যাকাররা মার্কিনি ডেটাসেটগুলি ৭ হাজার ডলার, যুক্তরাজ্যের ডেটা প্রায় আড়াই ডলার এবং জার্মানির ডেটাগুলি প্রায় ২ হাজার ডলারে বিক্রি করছে।

সারা বিশ্বের হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা প্রসঙ্গে চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট প্রকাশ করল সংবাদসংস্থা সাইবারনিউজ। এই সংস্থার দাবি, ইতিমধ্যেই গোটা পৃথিবী জুড়ে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপের মাধ্যমে বেহাত হয়ে গিয়েছে বহু ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য। বিশ্বের প্রায় চুরাশিটি দেশের প্রায় পঞ্চাশ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত হয়ে গিয়েছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে এই রিপোর্টে, এই দেশগুলির মধ্যে রয়েছে ভারতও।

ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিয়ে হ্যাকাররা বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমে সেই তথ্য বিক্রি করছে বলেও দাবি করেছে এই সংবাদসংস্থা। বলা হয়েছে, অনলাইনে সংগৃহীত কিছু নমুনা নিয়ে তদন্ত করতে গিয়েই জানা গিয়েছে এই তথ্য। একটি ‘হ্যাকিং কমিউনিটি ফোরাম’-এর তরফে কয়েক দিন আগে দাবি করা হয়েছিল যে, তাদের কাছে আটচল্লিশ কোটি সত্তর লক্ষ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর তথ্য রয়েছে। সেই তথ্য বিক্রি করা হচ্ছিল। সেই তথ্য ঘেঁটে দেখে বোঝা যাচ্ছে যে, হ্যাকারদের দাবি সত্যি হওয়া আশ্চর্যের কিছু নয়। সমগ্র বিশ্বে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন প্রায় দু’শো কোটি মানুষ। অর্থাৎ, হ্যাকারদের দাবি যদি সত্যি হয়, তাহলে বিশ্বব্যাপী হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রায় ২৫ শতাংশের ব্যক্তিগত তথ্যই এখন প্রভূত ঝুঁকির মুখোমুখি।

Subscribe to get breaking news alerts

ফাঁস হওয়া ফোন নম্বরগুলি যেমনভাবে বিভিন্ন বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হতে পারে, তেমনই সেই তথ্য কাজে লাগিয়ে ‘ফিশিং’-এর মতো প্রতারণামূলক কাজও করা হতে পারে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের। কোন কোন দেশের মোট কত মানুষ তথ্য সঙ্কটে পড়তে পারেন, তার একটি তালিকাও প্রকাশ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে। বলা হয়েছে, সবচেয়ে বেশি তথ্য চুরি হয়েছে মিশরে। সেখানে প্রায় সাড়ে ৪ কোটি (৪৫ মিলিয়ন) মানুষের তথ্য বেহাত হয়েছে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইতালি ও অমেরিকা। সেখানে যথাক্রমে সাড়ে ৩ কোটি (৩৫ মিলিয়ন) ও ৩ কোটি ২০ লক্ষ (৩২ মিলিয়ন) ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁস হয়েছে। ইতালি আমেরিকার পর এই তালিকায় রয়েছেন সৌদি আরব, ফ্রান্স এবং তুরস্কের নাগরিকরাও। এমনকি ভারতের নাগরিকরাও হ্যাকারদের নজরে পড়ে গিয়েছেন বলে সূত্রের দাবি। ভারত থেকে থেকে ষাট লক্ষেরও বেশি হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে প্রতিবেদনে।

চলতি বছরের ১৬ নভেম্বর, একজন অভিনেতা একটি সুপরিচিত হ্যাকিং কমিউনিটি ফোরামে একটি বিজ্ঞাপন পোস্ট করেছেন, যেখানে তিনি দাবি করেছেন যে, তারা ৪৮৭ মিলিয়ন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর মোবাইল নম্বর নিয়ে প্রায় ২০২২টি ডেটাবেস বিক্রি করছে। সেই ডেটাসেটে ৮৪টি দেশের হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর ডেটা রয়েছে বলে অভিযোগ। এই অভিনেতা হুমকি দিয়ে দাবি করেছেন যে, ৩২ মিলিয়ন মার্কিনি হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর রেকর্ড অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এই ডেটাসেটে প্রায় ১০ মিলিয়ন রাশিয়ান এবং ১১ মিলিয়ন যুক্তরাজ্যের নাগরিকদের ফোন নম্বর রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। অভিনেতা সাইবারনিউজকে জানিয়েছেন যে, তারা মার্কিনি ডেটাসেটগুলি ৭ হাজার ডলার, যুক্তরাজ্যের ডেটা প্রায় আড়াই ডলার এবং জার্মানির ডেটাগুলি প্রায় ২ হাজার ডলারে বিক্রি করছে।


আরও পড়ুন-
সাংবাদিককে বেধড়ক পিটিয়ে, লাথি মেরে হাতে হাতকড়া পরিয়ে দিল চিনের পুলিশ, জিনপিং-এর শাসনে দমবন্ধ দেশবাসীর
 কেরলের তিরুবনন্তপুরমের ভিজিঞ্জাম বন্দর নির্মাণের প্রতিবাদ পৌঁছে গেল চরম পর্যায়ে, পুলিশের ওপর ব্যাপক হামলা উপকূলীয় বাসিন্দাদের