কেরলের তিরুবনন্তপুরমের ভিজিঞ্জাম বন্দর নির্মাণের প্রতিবাদ পৌঁছে গেল চরম পর্যায়ে, পুলিশের ওপর ব্যাপক হামলা উপকূলীয় বাসিন্দাদের

| Nov 28 2022, 11:29 AM IST

anti-Adani port protest in Kerala Vizhinjam
কেরলের তিরুবনন্তপুরমের ভিজিঞ্জাম বন্দর নির্মাণের প্রতিবাদ পৌঁছে গেল চরম পর্যায়ে, পুলিশের ওপর ব্যাপক হামলা উপকূলীয় বাসিন্দাদের
Share this Article
  • FB
  • TW
  • Linkdin
  • Email

সংক্ষিপ্ত

বিক্ষোভকারীরা পুলিশের চারটি জিপ ও একটি মিনিভ্যান ভাঙচুর করেছেন। পুলিশের গাড়ি উলটেও দেওয়া হয়েছে। Kerala Vizhinjam Anti Adani port protesters attack police station

কেরলের তিরুবনন্তপুরমের ভিজিঞ্জামে আদানি বন্দর নির্মাণের বিরোধিতা পৌঁছে গেল চরম পর্যায়ে। কেরল পুলিশের হাতে হিংস্র আক্রমণকারী হিসেবে গ্রেফতার হওয়া এক ব্যক্তির মুক্তির দাবিতে রবিবার রাতে বিক্ষোভকারীরা তিরুবনন্তপুরমের স্থানীয় থানায় ভয়াবহ হামলা চালাল প্রতিবাদীরা।

রবিবারের সংঘর্ষে ৩০ জনেরও বেশি পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ কর্মীদের স্থানীয় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। এই বিক্ষোভের আঁচ গিয়ে লেগেছে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের ওপরেও। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের চারটি জিপ ও একটি মিনিভ্যান ভাঙচুর করেছেন। পুলিশের গাড়ি উলটেও দেওয়া হয়েছে। তাঁদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশকে কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করতে হয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান জেলাশাসক। হামলার খবর পেয়ে শহরের পুলিশ কমিশনার ও অন্যান্য আধিকারিক সহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা তড়িঘড়ি ভিজিঞ্জাম থানায় গিয়ে উপস্থিত হন।

Subscribe to get breaking news alerts

শনিবার গৌতম আদানির সংস্থার ভিজিঞ্জম মেগা পোর্ট প্রকল্পের নির্মাণকাজের বিরুদ্ধে সহিংস আন্দোলন হওয়ার পর কেরল পুলিশ আর্চবিশপ ড. থমাস জে নেটো এবং সহকারী বিশপ ক্রিস্টুরাজ সহ কমপক্ষে ৫০ জন ল্যাটিন আর্চডিওসিস পুরোহিতের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।

প্রতিবাদের মাধ্যমে উপকূলীয় বাসিন্দারা আদানি গ্রুপের বন্দর নির্মাণ পুনরায় শুরু করার প্রচেষ্টা থামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছিল। নির্মাণকাজে পুলিশি সুরক্ষা দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে কড়া নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। তা সত্ত্বেও প্রকল্পের সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ বেঁধে যায়। বিক্ষোভকারীরা নির্মাণসামগ্রী বহনকারী ২৭টি লরি থামিয়ে দেয় এবং যানবাহনের সামনে শুয়ে পড়ে। প্রবল বিরোধিতার কারণে নির্মাণসামগ্রী নিয়ে আসা লরিগুলো প্রকল্প এলাকায় প্রবেশই করতে পারেনি, ফলে তারা ফিরে যেতে বাধ্য হয়।

এদিকে, ধর্মঘটের ব্যাপারে পিনারাই বিজয়ন সরকারের দৃষ্টিভঙ্গিও বদলে যাচ্ছে। সরকার লাতিন আর্কডায়োসিস থেকে ১০৪ দিনের ধর্মঘটের কারণে সৃষ্ট ক্ষতির পূরণ আদায় করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বন্দর নির্মাণকারী সংস্থা ২০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ হিসেবে দাবি করেছে।

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই হামলার ঘটনায় মোট ৩৬ জন পুলিশকর্মী জখম হয়েছেন, এঁদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। সাব ইন্সপেক্টর লিজো পি.মনিকে তাড়াতাড়ি একটি স্থানীয় বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। তাঁর পায়ে একটি জরুরি অস্ত্রোপচারও করা হয়েছে। ঘটনায় ৮ জন প্রতিবাদীও আহত হয়েছেন। 


আরও পড়ুন-
‘আপনার এটিএম কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে’, ফোন কল পেয়েই ভুল করে বসলেন পূর্ব রেলের অবসরপ্রাপ্ত ম্যানেজার
সপ্তাহের শুরুতে ওপরের দিকেই রইল কলকাতার তাপমাত্রা, আজ কোন জেলায় কত নামল পারদ?
শুভেন্দুর গড়ে বিজেপির থেকে আলাদা হয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এল বাম, সমবায় নির্বাচনে জয়ী তৃণমূল