আগেই জানা গিয়েছিল, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট জো বাইডেনের প্রশাসনে সেক্রেটারি অব হেলথ বা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পেতে চলেছেন ডাক্তার বিবেক মূর্তি। এবার একেবারে এক বঙ্গসন্তানের নয়া মার্কিন মন্ত্রীসভার সদস্য হওয়ার সম্ভাবনা উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে। তিনি আমেরিকার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক অরুণ মজুমদার। গত সপ্তাহেই জো বাইডেন, হোয়াইট হাউসের ডিপার্টমেন্ট অব এনার্জি  ট্রানজিশন দলের প্রধান হিসাবে তাঁর নাম ঘোষণা করেছেন। আর বেশ কয়েকটি প্রথম সারির মার্কিন সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী তিনিই হতে চলেছেন বাইডেন প্রশাসনের শক্তি মন্ত্রী।

১৯৮৫ সালে আইআইটি বম্বে থেকে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং-এ স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দিয়েছিলেন অরুণ মজুমদার। বার্কলের ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৮৯ সালে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেছিলেন। তারপর থেকে শুধুই উপরের দিকে উঠেছেন এই বাঙালি। অ্যারিজোনা স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়, ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, সহ একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন। আমেরিকার বেশ কয়েকটি নামী অ্যাকাডেমির সদস্যও বটে।

স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাসরুমে অধ্যাপক অরুণ মজুমদার

তবে এইবার শেষ পর্যন্ত মার্কিন সেক্রেটারি অব পাওয়ার হলে, সেটাই তাঁর মার্কিন প্রশাসনে প্রথম দায়িত্ব হবে না। এর আগে ২০১১-১২-তেও শক্তি বিভাগের অন্ডারসেক্রেটারি হিসাবে কাজ করেছিলেন তিনি। সেইসময় রাষ্ট্রপতি ছিলেন বারাক ওবামা। তবে তাঁর মনোনয়ন বাতিল হয়ে যাওয়ার কারণে সেই পদ থেকে তাঁকে সরাতে বাধ্য হয়েছিলেন ওবামা। বদলে অরুণ মজুমদারকে প্রেসিডেন্ট ওবামা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞান রাষ্ট্রদূত হিসাবে নিয়োগ করেছিলেন। তবে এসবের আগও তিনি পারমাণবিক শক্তি এবং জীবাশ্ম জ্বালানি, শক্তি দক্ষতা ও পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি এবং বিদ্যুৎ বিতরণ অফিস ও নির্ভরযোগ্যতা বিভাগের প্রধানেকর দায়িত্ব সামলেছেন।

আরও পড়ুন - কেন মনমোহনকেই প্রধানমন্ত্রী করেছিলেন সনিয়া, ফের ঝড় তুলল ওবামা-র স্মৃতিকথা

আরও পড়ুন - লাদাখ মানচিত্র বিতর্ক, ভারতের কাছে লিখিতভাবে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হল টুইটার

আরও পড়ুন - জঙ্গি নিধনের নামে প্রমাণ লোপাট করল পাকিস্তান, আর কি ন্যায়বিচার পাবেন কুলভূষণ

জো বাইডেনের সঙ্গে অরুণ মজুমদার, তিনিই আমেরিকার পরবর্তী শক্তিমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে

এর পাশাপাশি শিল্পক্ষেত্রেও কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে অরুণ মজুমদারের। ওবামা প্রশাসনে বিজ্ঞানের রাষ্ট্রদূতের পদ সামলানোর পর গুগল সংস্থা তাঁকে তাদের জ্বালানি বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট করেছিল। তবে ছয়মাসের বেসি সেখানে মন টেকেনি তাঁর। ফিরে গিয়েছিলন ক্লাসরুমে, যোগ দিযেছিলেন স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে। এবার আবার ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট ক্ষমতায় ফিরতেই ডাক পড়েছে তাঁর। ছাত্র পড়ানো, গবেষণা ছেড়ে সামলাতে হবে সরকারি কাজ। আর, শেষ পর্যন্ত তিনি শক্তিমন্ত্রী হলে তা অবশ্যই সকল বাঙালির কাছে অত্যন্ত গর্বের মুহূর্ত হবে।